পরীক্ষামূলক ড্রোন উড্ডয়নকারীদের বেসামরিক বিমান পরিবহণ বিধি বিধান মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছে বিমান বাহিনী

পরীক্ষামূলক ড্রোন উড্ডয়নকারীদের বেসামরিক বিমান পরিবহণ বিধি বিধান মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছে বিমান বাহিনী

পরীক্ষামূলক ড্রোন ঢাকা, ২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৪ : পরীক্ষামূলক ড্রোন উড্ডয়নকারীদের বেসামরিক বিমান পরিবহণ বিধি বিধান মেনে চলার জন্য বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর পক্ষ থেকে বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে ।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরি দপ্তরের এক সংবাদ বিঞ্জপ্তিতে আজ এ অনুরোধ জানিয়ে বলা হয়, সম্প্রতি বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ,কলেজ ব্যক্তিগত উদ্যোগে বিভিন্ন ধরণের ড্রোন, রিমোট কন্ট্রোল চালিত হালকা বিমান তৈরীর উপর গবেষণা করছে যা সত্যিই প্রশংসার দাবীদার।

বিঞ্জপ্তিতে বলা হয় বাংলাদেশের আকাশ প্রতিরক্ষার অতন্দ্র প্রহরী বাংলাদেশ বিমান বাহিনী এ ধরণের উড্ডয়ন সংক্রান্ত উদ্যোগকে স¦াগত জানায় ও যথাযথ উৎসাহ প্রদান করে থাকে। তবে ইদানিং পরিলক্ষিত হচ্ছে যে, এ ধরণের পরীক্ষামূলক ড্রোন বা রিমোর্ট কন্ট্রোল চালিত বিমান/হেলিকপ্টার উড্ডয়ন সক্ষমতা নিরীক্ষণের লক্ষ্যে কোন ধরণের অনুমতি ছাড়াই পরীক্ষামূলকভাবে উড্ডয়ন করা হচ্ছে যা উড্ডয়ন নিরাপত্তার জন্য মারাতœক ঝুঁকিস¦রূপ।

উড্ডয়নের ব্যাপারে তথ্য না থাকায় অন্য সিভিল/ মিলিটারী বিমানের সাথে সংঘর্ষ হবার সম্ভাবনাকে নাকচ করা যায় না উল্লেখ করে বলা হয়, বাংলাদেশের আকাশ সীমায় সকল বিমান চলাচল বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের রেগুলেশন এবং বিমান বাহিনীর নির্ধারিত নিয়ম নীতি ও সরাসরি নিয়ন্ত্রণ দ্বারা পরিচালিত হয়। এছাড়াও নির্ধারিত আকাশ পথগুলো ব্যতীত অন্যান্য স্থানে যে কোন ধরণের বিমান যেমন সিভিল, মিলিটারী, ড্রোন, রিমোর্ট কন্ট্রোল চালিত হালকা বিমান, হেলিকপ্টার উড্ডয়নের জন্য বিমান বাহিনীর মতামত ও পূর্ব-অনুমোদন প্রয়োজন বলে বিঞ্জপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

বাংলাদেশের আকাশ সীমা রক্ষার গুরু দায়িত্ব বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর উপর অর্পিত থাকায বাংলাদেশের আকাশে যে কোন ধরণের উড্ডয়নের ব্যাপার বিমান বাহিনী কর্তৃপক্ষের অবহিত হওয়া অত্যাবশ্যক। এ কারণে সকল সংস্থা, বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ এবং অন্যান্য বেসামরিক ও সরকারি প্রতিষ্ঠান-কে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের রেগুলেশন ও বিমান বাহিনীর নিয়ম নীতি যথাযথভাবে মেনে চলার জন্য বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর পক্ষ থেকে বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়।

@রেজওয়ান