নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন সিসি

indexমিসরের সেনাপ্রধান ফিল্ড মার্শাল আবেদল ফাত্তাহ আল-সিসি দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণা দিয়েছেন। কুয়েতি দৈনিক আল-সেইয়াসাহকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা জানিয়েছেন তিনি। তবে বৃহস্পতিবার মিসরের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, পত্রিকাটি সিসির বক্তব্য ভুলভাবে উদৃব্দত করেছে। খবর : আলজাজিরা, এএফপি, বিবিসি। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন কি-না পত্রিকাটির এমন এক প্রশ্নের জবাবে ফিল্ড মার্শাল সিসি বলেন, আমাকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেখার যে ‘আকাক্সক্ষা’ মিসরের জনগণের রয়েছে তার প্রতি সম্মান দেখাতে চাই। তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে এবং আমার মিসরের জনগণের ডাকে সাড়া না দেওয়ার কোনো উপায় নেই।’ সম্প্রতি সিসিকে মিসরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিষয়ে দেশটির সর্বোচ্চ সামরিক কাউন্সিল সমর্থন জানিয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা দেওয়া হয়নি। গতকাল মিসরের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, সিসি এ ধরনের ঘোষণা শুধু মিসরের জনগণের কাছেই দেবেন। গত মাসে সেনা কমান্ডাররা প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে সিসির প্রতি সমর্থন জানিয়ে তাকে ফিল্ড মার্শাল পদে উন্নীত করেন। আগামী ছয় মাসের মধ্যে মিসরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। দেশটির প্রধান রাজনৈতিক দল ইখওয়ানুল মুসলিমিন ও এর নেতাদের রাজনীতিতে নিষিদ্ধ ঘোষণা করায় ওই নির্বাচনে জেনারেল সিসির তেমন কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী থাকবে না। ফলে তার সহজে বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। গত বছরের ৩ জুলাই মিসরের প্রথম নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করেন জেনারেল সিসি। এরপর মুসলিম ব্রাদারহুডের বিরুদ্ধে রক্তক্ষয়ী দমন অভিযান চালায় সেনাবাহিনী। এতে কয়েক হাজার মানুষ নিহত হয়। এখনও হাজার হাজার ব্রাদারহুড নেতাকর্মী কারাগারে বন্দি রয়েছেন। আগামী মধ্য এপ্রিলে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থী হওয়ার আগে সিসি সেনাপ্রধানের পদ থেকে পদত্যাগ করতে পারেন।