1
সিইসির বিরুদ্ধে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল গঠনের দাবি

সাংবিধানিক পদে থেকে বিএনপিকে নিয়ে বক্তব্য ভারপ্রাপ্ত নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) আবদুল মোবারকের বিরুদ্ধে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল গঠনের দাবি জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া। বুধবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল আয়োজিত ‘বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবসহ সকল নেতাকর্মীর মুক্তির দাবিতে’ শীর্ষক মানবন্ধনে তিনি বলেন, সাংবিধানিক পদে থেকে ভারপ্রাপ্ত সিইসি বিএনপিকে নিয়ে বক্তব্য দিয়ে সরাসরি সংবিধান লঙ্ঘন করেছেন। এজন্য তার বিরুদ্ধে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল গঠন করার জন্য আমি জোর দাবি জানাচ্ছি।
বিএনপি নাকে খত দিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছে- সিইসি’র এ বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করে রফিকুল বলেন, নির্বাচন কমিশনারকে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের লক্ষ্যে সংবিধানে সকল ধরনের ক্ষমতা দেয়া হয়েছে। কিন্তু তিনি সেই ক্ষমতার অপব্যবহার করে বৃহৎ একটি রাজনৈতিক দলের নেত্রী সম্পর্কে কুরুচিকর বক্তব্য দিয়েছেন। এই বক্তব্য দিয়ে সংবিধান লঙ্ঘন করেছেন।
খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলায় চার্জ গঠনের সমালোচনা করে এই আইনজীবী বলেন, আইনের নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া অনুসরণ না করে অন্যায়ভাবে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করা হয়েছে। এটা অবৈধ। তাকে (খালেদা) রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য এটা দেয়া হয়েছে। খালেদা  জিয়ার আইনজীবীরা বিচারকের ওপর হামলা করেছিলেন- আইনমন্ত্রীর এই বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, তার (আইনমন্ত্রী) এই বক্তব্য প্রমাণ করে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমাকের বিরুদ্ধে যে চার্জ গঠন করা হয়েছে, তার পেছনে সরকারের হাত রয়েছে।
উপজেলা পরিষদের নির্বাচন নিয়ে ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া বলেন, প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফা উপজেলা নির্বাচনের ফলাফলে বিএনপি এগিয়ে থাকলেও পরবর্তী দুই দফায় ঘোষণা দিয়ে কেন্দ্র দখল করে আওয়ামী লীগ জয়ী হয়েছে। আমার প্রশ্ন, এক মাসের মধ্যে আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা এত বেড়ে গেল কিভাবে?