বিদ্যুতের চাহিদা পূরণে সৌরভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন:প্রধানমন্ত্রী

0
36

1দৈনিক বার্তা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন,তাঁর সরকার বিদ্যুতের ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণে দেশে সৌরভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছে।প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ইতোমধ্যে নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের উপর সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছি এবং বিদ্যুতের ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণে সৌরভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের একটি পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে।

বাংলাদেশে অষ্ট্রিয়ার রাষ্ট্রদূত বের্নহার্ড ওয়াবেতজ বৃহস্পতিবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর সংগে তাঁর কার্যালয়ে দেখা করতে এলে তিনি একথা বলেন।বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেসসচিব বিজন লাল দেব সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

তিনি বলেন, বৈঠককালে দিল্লীভিত্তিক অনাবাসিক রাষ্ট্রদূত বের্নহার্ড বাংলাদেশে সৌরভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে তার দেশের সহায়তার কথা উল্লেখ করেন।প্রধানমন্ত্রী অস্ট্রিয়ার সহায়তাকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, দেশে ইতোমধ্যে সেচ কাজে সৌরশক্তি ব্যবহৃত হচ্ছে। তিনি ব্যবসা-বাণিজ্য এবং বিনিয়োগেও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক জোরদারের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।শেখ হাসিনা বলেন, ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির মাধ্যমে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নের বিশাল সুযোগ আছে। তিনি বাংলাদেশ থেকে পোশাক, সিরামিক, ওষুধ, পাট ও চামড়াজাত সামগ্রীর মত বিশ্বমানের পণ্য অধিক হারে আমদানি করতে অস্ট্রিয়া সরকারকে অনুরোধ জানান।

প্রধানমন্ত্রী জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলায় উন্নয়নশীল দেশগুলোকে সহায়তার জন্য অস্ট্রিয়াসহ উন্নত দেশগুলোকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। তিনি জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকির সম্মুখীন উন্নয়নশীল দেশগুলোতে অধিকতর বিনিয়োগ করতে উন্নত দেশগুলোর প্রতি আহবান জানান।অস্ট্রিয়ার রাষ্ট্রদূত দু’দেশের মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্কে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, অস্ট্রিয়া বাংলাদেশকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে প্রথম স্বীকৃতিদাতা কয়েকটি দেশের মধ্যে অন্যতম।

বের্নহার্ড বলেন, শান্তিরক্ষা মিশনসহ উভয় দেশের বহু অভিন্ন স্বার্থ রয়েছে। এ প্রসঙ্গে তিনি জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের সর্বাধিক সৈন্যের কথা উল্লেখ করেন।রাষ্ট্রদূত প্রযুক্তি উন্নয়ন এবং নবায়নযোগ্য জ্বালানী খাতে সহযোগিতা বৃদ্ধির উপর জোর দেন।রানা প্লাজা ধসে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত উদ্যোগের প্রশংসা করে রাষ্ট্রদূত বলেন, আপনি রানা প্লাজা ধসে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের পূর্নবাসনে ব্যাপক কাজ করেছেন।

অন্যান্যের মধ্যে এ্যাম্বাসেডর এট-লার্জ এম জিয়াউদ্দিন এবং প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবদুস সোবহান সিকদার এ সময় উপস্থিত ছিলেন।