সুপেয় পানি সরবরাহে ২৫ কোটি ডলার ঋণ দেবে এডিবি

0
30

1দৈনিক বার্তা: ঢাকা শহরে ক্রমবধর্মান চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে সুপেয় পানির সরবরাহ বাড়াতে বাংলাদেশ ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক-এডিবির মধ্যে আড়াইশো মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ঋণ চুক্তি সই হয়েছে।বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে এনইসি ভবন-২ এ বাংলাদেশের পক্ষে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব  মোহাম্মদ  মেজবাহউদ্দিন এবং এডিবির পক্ষে বাংলাদেশ আবাসিক মিশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর কাজুহিকো হিগুচি চুক্তি সই করেন। এসময় ঢাকা ওয়াসার পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিন এ খান উপস্থিত ছিলেন।

চুক্তির আওতায় ভূগর্ভস্থ পানি উত্তোলনের ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে ভূ-উপরিস্থ উৎস হতে পানি শোধন করে রাজধানীর মধ্য বাড্ডা, গুলশান, মিরপুর ও উত্তরায় সরবরাহ করা হবে।

ঢাকা মহানগরে সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে ২৫ কোটি ডলার ঋণ  দেবে আন্তর্জাতিক সহায়তা সংস্থা এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক-এডিবি। ঢাকা মহানগরের এক  কোটি ১০ লাখ মানুষ এই প্রকল্প সুবিধার আওতায় সুপেয় পানি পাবেন। ঋণের সুদ হার ধরা হয়েছে ২ শতাংশ। ঢাকা পরিবেশবান্ধব  টেকসই পানি সরবরাহ প্রকল্প’র আওতায় বাংলাদেশ এই ঋণ পাবে।

চুক্তি  মোতাবেক, ২ শতাংশ সুদ দিতে হবে। আর ঋণের  গ্রেস পিরিয়ড হচ্ছে ৫ বছর। এই ৫ বছর সহ ২৫ বছরে ঋণ পরিশোধ করতে হবে। মেজবাহউদ্দিন জানান, প্রকল্পের  মোট ব্যয় ৬৭  কোটি ৪৯ লাখ ডলার। এর মধ্যে সরকার বহন করবে ২২  কোটি ৪৯ লাখ ডলার। আর বাকি অর্থের ১০  কোটি ডলার করে  দেবে ফ্রান্স উন্নয়ন সংস্থা ও ইউরোপিয়ান বিনিয়োগ ব্যাংক।

তিনি আরও জানান, প্রকল্পের মেয়াদ ২০১৪ সালের জানুয়ারি  থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত মোট ৫ বছর ধরা হয়েছে।

প্রকল্পের তথ্য  কে জানা  গেছে, সরকার এ প্রকল্পে ভূ-উপরিস্থ পানিকে নগরের পানি চাহিদা  মেটাতে গুরুত্ব দিচ্ছে। এর মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার থানার বিশ্বনন্দী নামক এলাকার  মেঘনা নদীতে দুই হাজার এমএলডি পানি  শোধনাগার গড়ে তোলা হবে। এছাড়া রূপগঞ্জে আরও একটি  শোধনাগার হবে।

আর পরিশোধিত পানি নগরের গুলশান, বাড্ডা, মিরপুর ও উত্তরা এলাকায় সরবরাহ করা হবে।