‘গুম বন্ধে সরকারের আন্তরিকতা নেই’

0
22

2বিবিসি বাংলা সংলাপে প্যানেল আলোচক হিসেবে আলোচনায় অংশ নিয়ে বক্তারা বলেছেন তিস্তা ইস্যু নিয়ে ভারত যে আচরণ করছে তা বিরল। তাই দ্বিপক্ষীয় আলোচনার পাশাপাশি তিস্তার ন্যায্য হিস্যা আদায়ে ভারতকে ‘চাপ’ প্রয়োগ করতে হবে। এছাড়া গুম আতঙ্ক বন্ধে সরকারের আন্তরিকতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন আমন্ত্রিত অতিথিরা। শনিবার রাজধানী বিয়াম ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে বিসিবি মিডিয়া অ্যাকশন ও বিবিসি বাংলার যৌথ উদ্যোগে বিবিসি বাংলাদেশ সংলাপের ৭০ তম পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। আকবর হোসেনের সঞ্চালনায় প্যানেল আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব:) হাফিজউদ্দিন আহমেদ বীরবিক্রম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক ড. আসিফ নজরুল এবং অভিনেত্রী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের খন্ডকালিন শিক্ষক ত্রপা মজুমদার। আমেরিকার সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক স্বস্তিকর নয় অর্থমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের বিষয়ে ড. মশিউর রহমান বলেন, যার (পররাষ্ট্রমন্ত্রী) এবিষয়ে কথা বলার প্রয়োজন তিনি যেহেতু কিছু বলেননি তাই কে কি বলল তাতে আমেরিকার সঙ্গে বাংলাদেশের স্বস্তিকর সম্পর্কের বিষয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। ড. ইউনূসের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন দুটি রাষ্ট্রের মধ্যে সম্পর্কের বিষয়ে একজন ব্যাক্তির ভূমিকা সেটি রাজা রাজরাদের আমলে ছিল। এখন নেই। ভারতে সরকার বদল হলে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে কোন বিরূপ পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে না জানিয়ে তিনি বলেন কোন দেশের কাছ থেকে কোন দাবি আদায়ে লংমার্চ করে কোন লাভ হবে না। আলোচনায় অংশ নিয়ে মেজর (অব:) হাফিজউদ্দিন আহমেদ বলেন, সরকার গুম বন্ধে আন্তরিক নয়। যেহেতু তারা অবৈধভাবে ক্ষমতায় এসছে সেহেতু ক্ষমতায় থাকার চিন্তায় তাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনী ও ছাত্রলীগ যুবলীগকে লেলিয়ে দিয়েছে। তিস্তার প্রসঙ্গে তিনি বলেন পানি না দেয়া ভারতের শক্তিমত্তার প্রকাশ। তারা জানে এদেশে একটি অনির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় আছে। তাই যা খুশি তাই করা যাবে। ড. আসিফ নজরুল বলেন আমেরিকার সঙ্গে বাংলাদেশের যদি স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় থাকে তাহলে সম্পর্ক নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার যথেষ্ট কারণ রয়েছে। সকলের অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন, গুম ও ক্রসফায়ার বন্ধে আমেরিকার চাপ ছিল। তিনি বলেন আমরা এমন কোন শক্তিশারী দেশ হয়ে যায়নি যে আমেরিকা বা কে কি বলল তাতে আমাদের কিছু যায় আসে না। গুম বিষয়ে ড. আসিফ বলেন হয় সরকার বা আওয়ামী লীগ অপরাধীকে প্রশ্রয় দিচ্ছে অথবা এটি বন্ধে তারা অসমর্থ বা অনিচ্ছুক। তিস্তা ইস্যুতে তিনি বলেন পানি এমন একটি বিষয় যা সারাবছরই দরকার। ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের যে সম্পর্ক সেটা মৌখিক সম্পর্ক। পানি নিয়ে ভারত যে আচরণ করছে তা পৃথিবীতে বিরল। তিনি বলেন এখন ভারতকে ‘হুজুর দাও’ বললে হবেনা। পানির জন্য তাদেরকে চাপ দিতে হবে। প্রয়োজনে পানির জন্য আওয়ামী লীগকেও লংমার্চ করতে হবে বলে মত দেন ড. আসিফ।