বাংলাদেশ-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক কমফোর্টেবল নয়

0
38

2দৈনিক বার্তা: বাংলাদেশকে শুল্কমুক্ত সুবিধা দেয়া বা বাংলাদেশের উন্নয়নের বিষয়টিকে যুক্তরাষ্ট্র কখনো গুরুত্ব দেয় না এমন মন্তব্য করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন,যুক্তরাষ্ট্র সব সময় গ্রামীণ ব্যাংক ও ইউনূস নিয়ে হৈ চৈ করে। যুক্তরাষ্ট্র দাবি করে ইউনূস সাহেব একজন সম্মানিত ব্যক্তি, তিনি সম্মান পেলেই তারা খুশি। বাংলাদেশের অন্য কোনো কিছুতেই তাদের মাথাব্যথা নেই।
শনিবার অর্থ মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোতে পনের দিনের সফর শেষে দেশে ফিরে মন্ত্রী সামগ্রিক বিষয় তুলে ধরেন।
বাংলাদেশকে শুল্কমুক্ত সুবিধা দেয়া বা বাংলাদেশের উন্নয়নের বিষয়টিকে যুক্তরাষ্ট্র কখনো গুরুত্ব দেয় না উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, রাজনৈতিক কারণে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে শুল্ক ও কোটামুক্ত সুবিধা দিচ্ছে না। বাংলাদেশের জন্ম থেকেই যুক্তরাষ্ট্র বিরোধিতা করে আসছিল। দীর্ঘদিন ধরে আমরা শুল্কমুক্ত সুবিধা চেয়ে আসছি। কিন্তু তারা আমাদের কোনো সুবিধা দেয়নি। তারা সব সময় গ্রামীণব্যাংক ও ইউনূস নিয়ে হৈ চৈ করে।
যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশ বছরে ৩ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলারের তৈরি পোশাক রপ্তানি করে থাকে। এর মধ্যে এক তৃতীয়াংশের উপর শুল্ক দিয়ে থাকে বলেও জানান মন্ত্রী।
মুহিত বলেন, আমরা ইউনূস সাহেবকে কখনো অসম্মান করিনি। তিনি দীর্ঘদিন এই ব্যাংকটিকে আকড়ে রেখেছিলেন। আমরা পদক্ষেপ নেয়ার পর তিনি আদালতেও গিয়েছিলেন। সেখানে হেরে গেছেন। আইন অনুযায়ী সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের পর যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের নতুন সরকার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। এখন অবশ্য তারা সে জায়গা থেকে সরে এসেছে। তবে বাংলাদেশের জন্মের শুরু থেকেই তারা কিন্তু বিরোধিতা করে আসছে। জানি না সে কারণেই তারা হয়তো আমাদের শুল্কমুক্ত সবিধা দেয়ার দাবি মেনে নিচ্ছে না।