‘সিরিয়ার হাতে এখনো রাসায়নিক অস্ত্র আছে’

0
48

1দৈনিক বার্তা : সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র ধ্বংস করার দায়িত্বপ্রাপ্ত টাস্ক ফোর্সের প্রধান সিগ্রিড কাগ আজ এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, দেশটিতে যে ১৩০০ টন রাসায়নিক অস্ত্র ছিল তার প্রায় আট শতাংশ এখনো দামেস্কের হাতে রয়ে গেছে।

দামেস্কে বিবিসির আরবি বিভাগকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মিজ কাগ এ কথা বলেন। তিনি বলেন, নির্দিষ্ট একটি জায়গায় এই অস্ত্রগুলো আছে।

সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্রের পুরো মজুত আন্তর্জাতিক টাস্ক ফোর্সের হাতে তুলে দেবার সময়সীমা আজই শেষ হচ্ছে।

ওপিসিইউ বা ‘অর্গানাইজেশন ফর দি প্রহিবিশন অব কেমিক্যাল ওয়েপনস’ তাদের রিপোর্টে বলেছে ৮৬ শতাংশ বিপজ্জনক রাসায়নিক পদার্থই অপসারিত করা হয়েছে।

মিজ কাগ বলেন, এ কাজে সিরিয়া “অত্যন্ত গঠনমূলকভাবে” সহযোগিতা করছে।

তিনি বলেন, সাম্প্রতিক কিছু খবরে জাতিসংঘ উদ্বিগ্ন যে সিরিয়ান বাহিনী অস্ত্র হিসেবে ক্লোরিন গ্যাস ব্যবহার করেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

অবশ্য সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্রের মজুত ধ্বংসের জন্য আন্তর্জাতিক পরিদর্শকদের হাতে তুলে দেবার যে চুক্তি হয়েছিল – তাতে ক্লোরিন অন্তর্ভুক্ত ছিল না।2

মনে করা হয় যে ওই চুক্তিটি হয়েছিল বলেই সিরিয়ার বাশার আল-আসাদ সরকারের বিরুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক অভিযান এড়ানো সম্ভব হয়েছিল।

দামেস্কের কাছে বেসামরিক লোকদের ওপর নার্ভগ্যাস প্রয়োগের খবর প্রচার হবার পর এ ব্যাপারে বাশার আসাদ সরকারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ তৈরি হয়।