2দৈনিক বার্তা: সৌদি আরবের বিয়াদস্থ শিফা সানাইয়ায় তিতাস ফার্নিচার নামক ফ্যাক্টরিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের নিয়ম অনুযায়ী ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। পাশাপাশি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় নিহতদের শনাক্তের পর মৃতদেহ দেশে ফেরত আনার প্রক্রিয়া চলছে।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার রাতে এই তথ্য জানিয়েছে।
জানা গেছে, সৌদি আরবের বিয়াদস্থ শিফা সানাইয়া এলাকায় গত ১২ মে রাতে তিতাস ফার্নিচার নামক ফ্যাক্টরিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ফ্যাক্টরিতে মোট কর্মরত ১৫ জন কর্মীর মধ্যে ১৩ জন ছিলেন বাংলাদেশি। অগ্নিকাণ্ডে ১১ জন ঘটনাস্থলেই মারা যান। যার মধ্যে ৯ জন বাংলাদেশি। মৃতদেহগুলো বিকৃত অবস্থায় উদ্ধার হলেও পর্যন্ত শনাক্ত করা যায়নি। বিয়াদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস জানিয়েছে, ঘটনাস্থল থেকে বাংলাদেশের আব্দুল হান্নান নামে একজন কর্মীকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে।
অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৯ বাংলাদেশির মৃতদেহ সমোচি হাসপাতালের হিমাগারে রাখা হয়েছে। শনাক্তের পর মৃতদেহগুলো দেশে ফেরত পাঠান হবে এবং সরকারি বিধি মোতাবেক ক্ষতিপূরণ আদায়ের ব্যবস্থা করা হবে। দুতিন দিনের মধ্যে লাশগুলো বাংলাদেশে আনা হতে পারে বলে সূত্রটি আভাস দিয়েছে।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার রাতে জানায়, তিতাস ফার্নিচারের মালিক একজন সৌদি নাগরিক হলেও ফ্যাক্টরিটির পরিচালনাকারী ছিলেন দুজন বাংলাদেশি। তারা হলেন রাজু ও তার ভাই মইনুল। ঘটনার পর থেকে রাজু পলাতক রয়েছেন।