11দৈনিক বার্তা :শুক্রবার ইভিএম খোলার অপেক্ষায় রয়েছে গোটা দেশ। তাকিয়ে রয়েছে কংগ্রেসও। কিন্তু এবারের বৈতরণী পার হওয়া বিলক্ষণ কঠিন কংগ্রেসের কাছে। তাই ফের একবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরতে চাইছে কংগ্রেস। বৃহস্পতিবার কংগ্রেস নেতা রশিদ অলভি জানিয়ে দিলেন, সমস্ত ধর্মনিরপেক্ষ দলগুলির মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে একজোট হয়ে মোদীকে দিল্লির মসনদ থেকে দুরে রাখা উচিৎ।
বুথ ফেরৎ প্রায় সব সমীক্ষায় ইউপিএ থ্রি হওয়ার কোনও সম্ভবনা নেই দেখে আঞ্চলিক দলগুলিকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে কংগ্রেস। কংগ্রেস নেতার এই বক্তব্য যথেষ্ট ইঙ্গিতবাহী বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। রাত পোহালেই দেশজুড়ে স্পষ্ট হবে যাবে দিল্লির মসনদে এবার কে বসবে। গণনার আগের সন্ধ্যেয় কেন এরকম মন্তব্য করলেন রশিদ অলভি? যখন দলের যুবরাজ এ রাজ্যে এসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে টেট থেকে শুরু করে সারদা ইস্যু নিয়ে একহাত নিয়েছেন।

রাজনৈতিক মহল মনে করছে এবারে কংগ্রেসের ক্ষমতায় টিকে যাওয়ার সুযোগ কম। বিজেপি ক্ষমতায় আসছে ধরে নিয়ে ঘুটি সাজাতে শুরু করেছেন নরেন্দ্র মোদী। শরিকদের হাতে বিশেষ ক্ষমতা না রেখে একাই শাসনযন্ত্র কুক্ষিগত রাখতে চান মোদী। তাই পাল্টা এই চাল চালল কংগ্রেস। আঞ্চলিক দলগুলিকে মোদীর বিরুদ্ধে এককাট্টা হতে আহ্বান জানাল কংগ্রেস। রশিদ এদিন বলেন, জানি কংগ্রেসের পক্ষে এবার সরকার গঠন করা কঠিন হবে। কিন্তু মোদীকে মসনদ থেকে দূরে রাখা দরকার। তার বিরুদ্ধে সমস্ত ধর্মনিরপেক্ষ দলগুলিকে এককাট্টা হতে হবে। তাঁর মতে, সমস্ত ধর্মনিরপেক্ষ দলগুলিকে এক হয়ে তাদের নেতা বেছে নিতে হবে। তিনি আরও বলেন, কংগ্রেস কেন্দ্রে ধর্মনিরপেক্ষ সরকার গঠনে কখনই দ্বিধা করে না।