4দৈনিক বার্তা — দুর্বৃত্তদের ছোড়া পেট্রোল বোমা হামলায় ফেনীর ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান একরামুল হক আগুনে দগ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সকালে প্রকাশ্য দিবালোকে শহরে বিলাসী সিনেমা হলের সামনেেএ ঘটনা ঘটে। এ সময় গাড়িতে থাকা আরো তিনজন আহত হয়েছেন ।
মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে একরামুল হক ফেনী শহরের বাসা থেকে নিজ গাড়িতে করে ফুলগাজী যাচ্ছিলেন। শহরের বিলাসী সিনেমা হলের সামনে পৌঁছার পর আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা দুর্বৃৃত্তরা তার গাড়ি লক্ষ্য করে এলাপাতাড়ি গুলি ছোড়ে। এরপর  পেট্রোল বোমা ছুড়ে গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে গাড়িতে আগুন ধরে গেলে দগ্ধ হয়ে একরামুল হক ঘটনাস্থলেই মারা যান। এসময় আগুনে গাড়ির চালকসহ অপর তিনজন গুরুতর আহত হয়েছেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হামলাকারীরা গাড়িতে থাকা তিনজন পালানোর চেষ্টা করলে তাদের এলোতাপাতারী আঘাত করে। এতে তিনজন আহত হয়ে। এরপর হামলাকারীরা মোটর সাইকেলে করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। আহত তিনজনকে ফেনী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 1ঘটনার পর ফেনী শহরে উত্তেজনা বিরাজ করছে। নিহত উপজেলা চেয়ারম্যান একরামুলের সমর্থকরা শহরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষুব্ধ হয়ে গাড়ি ভাংচুর করে। এদিকে একরামুল হকের মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার পর পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা ছাড়াও জেলার শীর্ষ স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ তার বাসভবনে জড়ো হয়েছেন।
একরামুল হক ফুলগাড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। তিনি কিছুদিন আগে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তাকে হত্যার ব্যাপারে প্রাথমিকভাবে পুলিশ কোন তথ্য দিতে পারেনি। তবে ধারনা করা হচ্ছে অভ্যন্তরীণ দলীয় কোন্দলের কারনে এ হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে।