1মনির/দৈনিক বার্তা : ফরিদপুর জেলা সদরসহ বিভিন্ন উপজেলায় কর্মরত বিভন্ন কর্মকর্তাদের কাছে জনযুদ্ধ ও সর্বহারাসহ বিভিন্ন নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠনের নামে দাঁদা দাবী করা হয়েছে। এ নিয়ে প্রশাসনে তোলপাল শুরু হয়েছে। ১৬ মে থেকে ১৯ মে বিকাল পর্যন্ত মোবাইল ফোনের মাধ্যমে এ চাঁদা দাবী করা হয় বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

বোয়ালমারী উপজেলা নির্বহিী কর্মকর্তা মোঃ সহিদুজ্জামান জানান, সোমবার মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ জালাল উদ্দিন, মৎস্য কর্মকর্তা মুহাঃ নওশের আলীকে ফোন করে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করা হয়। এর আগে ১৬ মে উপজেলা প্রকৌশলীকে ফোন করে ৫ লাখ ও সাব রেজিষ্টার সঞ্জয় কুমার চক্রবর্তীকে ১৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করা হয়।

বোয়ালমারী উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মুহাঃ নওশের আলী জানান, বেলা ১২.২২ মিনিটে ফোন দিয়ে আঞ্চলিক জনযুদ্ধের কমান্ডার আজিজ ভাই পরিচয় দিয়ে সংগঠনের আহত চার সদস্যের চিকিৎসার জন্যে ৫ লাখ দাবী করা হয়।

বোয়ালমারী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ জালাল উদ্দিন জানান, ০৩.২৪ মিনিটে ০১৯৫২৮৫৬০৮৭ নম্বর মোবাইল থেকে সর্বহারা প্রধান পরিচেয়ে আজিজ নাম বলে ফোন দিয়ে চাঁদা দাবী করা হয়।

আলফাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গোলাম কিবরিয়া জানান, আলফাডাঙ্গায় কর্মরত এক কর্মকর্তাকে হুমকী দেয়ার ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়রী (জিডি) করা হলেও তদন্তের স্বার্থে তা প্রকাশ করতে পারছি না।

ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ নাজমুল ইসরাম জানা, মৌখিকভাবে শুনেছি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে হুমকী দেয়া হয়েছে। এঘটনায় তিনি জিডি করতে আসেননি। #