ইসরায়েলিদের তোপের মুখে লিওনেল মেসি

452643116-300x200দৈনিকবার্তা,আগস্ট ২৪: ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের চলমান সহিংসতায় বেশ ভালোভাবেই জড়িয়ে পড়েছেন লিওনেল মেসি। না, খেলার মাঠ ছেড়ে যুদ্ধের ময়দানে হাজির হননি এ সময়ের সেরা তারকা। কোনো পক্ষও নেননি। পিতৃত্বের অনুভূতি থেকে সমবেদনা জানিয়েছিলেন বোমা হামলার শিকার হওয়া ফিলিস্তিনের শিশুদের প্রতি। সেবার তার ওপর চড়াও হয়েছিলেন ইসরায়েলের পক্ষ নেওয়া ফেসবুক ব্যবহারকারীরা। এবার হামাসের হামলায় ইসরায়েলের এক শিশু নিহত হয়েছে। সেই শিশুকে কেন্দ্র করে মেসিকে কটাক্ষ করে সামাজিক গণমাধ্যমে তোলপাড় করছেন ইসরায়েলিরা।
সম্প্রতি হামাসের মর্টার হামলায় মারা গেছে এক ইসরায়েলি শিশু। এর পরপরই সামাজিক গণমাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়েছে তার ছবি। যেখানে ৪ বছর বয়সী ড্যানিয়েল ট্রেগারম্যানকে দেখা যাচ্ছে আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে। এখন মেসি যেন হামাসের এই হামলার বিরুদ্ধেও কথা বলেন সে জন্য জোর দাবি জানাচ্ছেন ইসরায়েলিরা। ছবিটি ফেসবুকে পোস্ট করে একজন লিখেছেন, ‘লিও মেসি, দেখো ছেলেটাকে। বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়ের জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দাঁড়িয়ে আছে।’ বার্সেলোনায় খেলার কারণেও ইসরায়েলিদের তোপের মুখে বেশি করে পড়তে হচ্ছে মেসিকে। এখন বার্সার প্রধান স্পনসর কাতার এয়ারওয়েজ। আর কাতার হামাসকে সমর্থন দেয় বলে ইসরায়েলিদের অভিযোগ।
মেসি অবশ্য আলাদা করে ইসরায়েল বা ফিলিস্তিন, কোনো পক্ষের হয়েই কথা বলেননি। একজন বাবা ও ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে শিশুদের প্রাণহানিতে যে কষ্ট পাচ্ছেন, সেটাই দুই সপ্তাহ আগে জানিয়েছিলেন এক ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে। সঙ্গে জুড়ে দিয়েছিলেন আহত এক ফিলিস্তিনি শিশুর ছবি। শিশু, সে ইসরায়েলেরই হোক কিংবা ফিলিস্তিনের, তাকে নৃশংসভাবে মেরে ফেলা হলে পৃথিবীর সব বাবারই মন কেঁদে ওঠাই তো মানবিকতার পরিচয়।— এনডিটিভি