‘আন্দোলন করি আমরা বোমা মারে তারা’

101

khaleda-zia-best_81518

দৈনিকবার্তা,২৬আগস্ট: সোমবার রাতে রাজধানীর গুলশানে রাজনৈতিক কার্যালয়ে একথা বলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া
বিএনপির ‘শান্তিপূর্ণ’ কর্মসূচিকে আওয়ামী লীগ সহিংস করে তুলছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।’আন্দোলন করি আমরা বোমা মারে তারা’
আজ সোমবার রাতে রাজধানীর গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে রংপুর বিভাগ থেকে নির্বাচিত বিএনপি সমর্থিত উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস-চেয়ারম্যানদের সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি এ অভিযোগ করেন।
সরকার পতনে ঈদের পর আন্দোলন শুরুর প্রসঙ্গে খালেদা জিয়া বলেন, ‘আমরা বলেছি, আমরা আন্দোলন করব। কিন্তু আমরা কখনও বলিনি ওদের (আওয়ামী লীগ) মতো সন্ত্রাসী- আন্দোলন করব।’
তিনি বলেন, আমরা অন্দোলন করি আর বোমা মারে তারা (আওয়ামী লীগ) । যেসব বোমা হামলা হয়েছে বিভিন্ন স্থানে, চলন্ত বাসে আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে- এগুলি তারা করেছে। লগি-বৈঠা নিয়ে নামতে শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছিলেন। বিডিআর হত্যার পেছেনে তার হাত ছিল।
বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, দেশে কোনো গণতন্ত্র নেই। আজ তারা (আওয়ামী লীগ) মানুষের মুখ বন্ধ করে রাখতে চায়। কারণ তারা অপকর্ম করলে মানুষ তা বলবে। এজন্যই তারা সম্প্রচার নীতিমালার নামে পত্র- পত্রিকা, টিভি বন্ধ করে দিতে চায়। যাতে কেউ তাদের বিরুদ্ধে কিছু বলতে না পারে।
তিনি আরো বলেন, তাতেও তারা সন্তুষ্ট হয়নি। তাই বিচারকদের অভিশংসনকে তারা সংসদে নিয়ে আসছে। বিচাররকরা যাতে তাদের বিরুদ্ধে কথা বলতে না পারে তাই তারা ইমপিচমেন্টকে সংসদে নেয়া হচ্ছে। তারা যে অপকর্মগুলো করেছে তার যাতে ভবিষ্যতে বিচার না হয় তাই তারা এ কাজ করছে।
খালেদা জিয়া বলেন, তারা বাকশাল করেছিল । সব পত্রিকা বন্ধ করে দিয়েছিল । এখনও আবার সেই প্রক্রিয়ায় দেশকে নিতে চাইছে আওয়ামী লীগ। দেশে আইনের শাসন নেই। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে যেভাবে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে সেভাবেই তারা চলছে। আওয়ামী লীগ হলে একরকম বিচার, অন্যদের জন্য আরেকরকম বিচার।
তিনি বলেন, তারা যে অপকর্ম করছে এর জন্য তাদের সে শাস্তি পেতে হবে। ওরা ভোটের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসেনি। ওরা সিলেক্টেড। বিএনপিকে বলেছিল আসেন ভাগ দেব। আমরা ভাগে বিশ্বাসী নই। জনগণ চাইলে অমরা বিরোধী দলে থাকব। ১৫৪ আসন তারা নিজেরা নিয়েছে। এরশদাকে দিয়েছে কয়েকটা। তাতেই তিনি সন্তুষ্ট। সব জায়গায়াই ভাগ ভাটোয়ারা চলছে। এ অবস্থায় দেশ চলতে পারে না।