ভারতীয় টিভি চ্যানেল সমপ্রচার বন্ধ চেয়ে করা রিট খারিজ

High Cortদৈনিকবার্তা-ঢাকা,২৬আগষ্ট: বাংলাদেশে ভারতীয় তিন টিভি চ্যানেলের সমপ্রচার বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে দায়ের করা রিটটি খারিজ করে দিয়েছেন আদালত৷মঙ্গলবার আদালত এ আবেদনটি নটপ্রেস আদেশ দিয়েছেন৷অর্থাত্‍ আদালত বলেছেন, আবেদনটি ফাইল করা হয়নি এ মর্মে খারিজ করে দেয়া হলো৷
বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি আবু তাহের মোহাম্মদ সাইফুর রহমানের অবকাশকালীন বেঞ্চ উত্থাপিত হয়নি মর্মে রিটটি খারিজ করে দেন৷এর আগে গত ৭ আগস্ট সুপ্রিম কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ ভারতীয় তিন টিভি চ্যানেল বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে একটি রিট দায়ের করেন আইনজীবী শাহীন আরা লাইলী৷ তার পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট এখলাস উদ্দিন ভুঁইয়া৷
এ সমপ্রচার বন্ধ চেয়ে করা রিট আবেদনটির প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গত ২১ আগস্ট বাংলাদেশে ভারতীয় টিভি চ্যানেলের সমপ্রচারের লাইসেন্স ও অর্থ লেনদেনের বিষয়ে তথ্য জানতে চেয়ে নথিপত্র চেয়েছিলেন আদালত৷ এসব তথ্য মঙ্গলবার দাখিল করেন ভারতের স্টার গ্রুপের বাংলাদেশি এ জেন্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু৷গত ৭ আগস্ট এ রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সৈয়দা শাহীন আরা লাইলী৷২১ আগস্ট রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আবেদনকারীর আইনজীবী একলাছ উদ্দিন ভূঁইয়া৷ ভারতের স্টার গ্রুপের বাংলাদেশি এজেন্টের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু৷ রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম উপস্থিত ছিলেন৷
রিটে বিবাদী করা হয় তথ্য সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব,বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনের (বিটিআরসি)সচিব ও পুলিশের মহাপরিদর্শককে৷আবেদনে বাংলাদেশে ভারতীয় টিভি চ্যানেলের সমপ্রচার বন্ধে কেন নির্দেশনা দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারির আরজি জানানো হয়৷
এছাড়া ভারতের তিনটি চ্যানেল স্টার জলসা, স্টার প্লাস ও জি বাংলা ৭ দিনের মধ্যে সমপ্রচার বন্ধ করে দুই সপ্তাহের মধ্যে আদালতে অগ্রগতি প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য বিবাদীদের প্রতি নির্দেশনা চাওয়া হয়৷
আবেদনকারীর আইনজীবী একলাছ উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, ভারতে বাংলাদেশের কোনো টিভি চ্যানেল প্রচার হয় না৷ অথচ বাংলাদেশে ভারতীয় টিভি চ্যানেলের অবাধ সমপ্রচারের ফলে যুব সমাজ ধংসের সম্মুখীন৷ সর্বশেষ তাদের একটি টিভি চ্যানেল স্টার জলসার বোঝেনা সে বোঝেনা সিরিয়ালের পাখি চরিত্রের নামে পোশাক কিনতে না পেরে বাংলাদেশে অনেকে আত্মহত্যা করেছে৷ তাই যুব সমাজকে রক্ষার্থে এ রিট করা হয়৷
এর আগে গত ৩ আগস্ট রেজিস্ট্রি ডাকযোগে এ বিষয়ে আইনি নোটিশ পাঠান আইনজীবী এখলাস উদ্দিন ভূঁইয়া৷নোটিশ পাওয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্যে বাংলাদেশে ভারতীয় টিভি চ্যানেলের সমপ্রচার বন্ধের ব্যবস্থা না নেওয়া হলে হাইকোর্টে জনস্বার্থে রিট করা হবে বলে নোটিশে জানানো হয়৷
নোটিশে বিবাদী করা হয় তথ্যমন্ত্রী, তথ্যসচিব ও বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনকে(বিটিআরসি)৷এখলাস উদ্দিন জানান, ভারতে আমাদের দেশের চ্যানেল সমপ্রচারের অনুমতি দেয় না৷ কিন্তু আমাদের দেশে তাদের চ্যানেল চলছে৷ আর এতে সামাজিক অবক্ষয় ঘটেছে৷ সর্বশেষ তাদের একটি টিভি চ্যানেলের সিরিয়ালের চরিত্রের নামে পোশাক কিনতে না পেরে অনেকে আত্মহত্যা করেছে৷
তিনি বলেন,দৈনিক আমাদের সময়-এ এ নিয়ে শনিবার পাখি প্রেমে প্রাণ বিসর্জন শিরোনামে একটি প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়েছে৷
ওই প্রতিবেদনে বলা হয়,দেশের ঘরে-ঘরে বাড়ছে ভারতীয় ধারাবাহিক নাটকের জনপ্রিয়তা৷ এসব সিরিয়ালপ্রীতির কারণে দেশের টেলিভিশন চ্যানেলগুলো ক্রমেই দর্শক হারাচ্ছে, দেশ হারাচ্ছে নিজস্ব সংস্কৃতি৷ কিশোরী-তরুণীদের ফ্যাশনেও এর মারাত্মক নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে৷ সর্বশেষ, ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেল স্টার জলসার বোঝে না সে বোঝে না সিরিয়ালের পাখির প্রেমে প্রাণ গেল এক যুবক ও মেয়েশিশুর৷পাখি চরিত্রে রূপদানকারী তরুণীর পোশাকের অনুকরণে এবার পাখি নামের একটি পোশাক দেশের ঈদবাজারে জমজমাট ব্যবসা করেছে৷ঈদে চড়া মূল্যের এ জামা নতুন স্ত্রীকে কিনে দিতে না পারার ব্যর্থতায় আত্মহত্যা করেছে প্রান্তিক শ্রেণির এক যুবক৷ ঈদের আগের দিন বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের নন্দ তেঘরী গ্রাম শাহীন নামের ওই যুবক আত্মঘাতী হয়৷
পাখির মরণকামড় থেকে ছাড় পায়নি দশ বছরের শিশুও৷পাখি নামের পোশাক না পেয়ে অভিমানে ঈদের দু’দিন আগে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে নূরজাহান নামে দ্বিতীয় শ্রেণীর এক স্কুল শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে৷