শিগগিরই বাড়ছে না জ্বালানি তেলের দাম: অর্থমন্ত্রী

0
89

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত-1

দৈনিকবার্তা -নিউজ : শিগগিরই জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর পরিকল্পনা নেই জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত৷ বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত ক্রয়সংক্রান্ত কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন৷

অর্থমন্ত্রী বলেন, ছয় মাসের জন্য সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া, চীন, ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, সংযুক্ত আরব-আমিরাত, ফিলিপাইন এবং কুয়েত থেকে ফার্নেস ও গ্যাস ওয়েল আমদানি করা হবে৷সরকারি পর্যায়ে রাষ্ট্রায়াত্ত্ব প্রতিষ্ঠান থেকে আমদানি করা তেলের মূল্য দাঁড়াবে প্রায় ১১ হাজার কোটি টাকা বলে জানান তিনি৷

বৈঠকে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর বিষয়ে কোনো আলোচনা হয়নি জানিয়ে মুহিত বলেন, এটা আন্তর্জাতিক বাজারের দামের ওপর নির্ভর করে৷ এটি (প্রস্তাব) জ্বালানি মন্ত্রণালয় থেকে এলে বোঝা যাবে, আমরা ইনিশিয়েট করব না৷ বৈঠক আগামী ছয় মাসের জন্য বিভিন্ন দেশ থেকে সাড়ে ৮ লাখ মেট্রিক টন জ্বালানি তেল (ফার্নেস অয়েল ও গ্যাস ওয়েল) আমদানির প্রস্তাবে অনুমোদন দেয়া হয়৷

আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সমন্বয় করেই জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো-কমানোর সিদ্ধান্ত আগেই হয়ে আছে বলে জানান অর্থমন্ত্রী৷সর্বশেষ ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে বাড়ানো হয়েছিল জ্বালানি তেলের দাম৷ সেবার পেট্রোল ও অকটেনের দাম লিটার প্রতি ৫ টাকা এবং ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটার প্রতি ৭ টাকা করে বাড়ানো হয়৷

নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতুর তৈরির সঙ্গে সরকারের বন্ড ছাড়ার কোনো সম্পর্ক নেই বলেও জানান অর্থমন্ত্রী৷ বন্ড-টন্ড নেয়ার এর সঙ্গে এর (পদ্মা সেতু) কোনো সম্পর্ক নেই৷ বন্ড যদি উঠাই ইটস নট ফর পদ্মা সেতু; বন্ড যদি উঠাই তাহলে তা আদার পারপাস, যদি করি৷

দেশের দীর্ঘতম এই সেতুর অর্থায়নের বিষয়ে তিনি বলেন, ৫ হাজার কোটি টাকা পদ্মা সেতু নির্মাণে দেব৷ গত বছরে ডেভলপমেন্ট বাজেট ৬৫ হাজার কোটি টাকা ছিল, এবছর করা হয়েছে ৮০ হাজার কোটি টাকা, এখানে ৫ হাজার কোটি টাকা কিছু না; ৫ হাজার ইজ নাথিং৷

১২ হাজার কোটি টাকায় চার বছরের মধ্যে পদ্মা সেতুর মূল কাঠামো নির্মাণে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে চীনা কোম্পানি মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড৷ গত ১৭ জুন এই চুক্তি করা হয়৷

মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে ঢাকা সিটি কর্পোরেশন পরিচ্ছন্নতা কর্মী নিবাস প্রকল্পের আওতায় দয়াগঞ্জ ক্লিনার্স কলোনিতে পাঁচটি ১০ তলা ভবন নির্মাণের প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়৷

এর পাশাপাশি টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার নাগরপুর-মির্জাপুর ভায়া মোকনা সড়কে ধলেশ্বরী নদীর ওপর ১২০ মিটার দীর্ঘ সেতু নির্মাণ প্রকল্পেরও ছাড়পত্র দেয়া হয়৷