অবকাঠামো উন্নয়নে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনা হবে: কাদের

0
44

obaidul Kaderদৈনিকবার্তা-ঢাকা, ৩সেপ্টেম্বর: পার্বত্য চুক্তি অনুযায়ী ৩ পার্বত্য জেলার যোগাযোগ অবকাঠামো উন্নয়নের ক্ষেত্রে ৩-৪ বছরের মধ্যে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনা হবে বলে জানিয়েছেন যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের৷বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে ৩ পার্বত্য জেলার যোগাযোগ ও উন্নয়ন বিষয়ক এক সভায় তিনি এ কথা বলে৷

যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, জেলাগুলোতে সেতু, সড়ক, পর্যটন ও আন্তঃজেলার যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রয়েছে৷ এরই ধারাবাহিকতায় এখন মানুষ অনায়াসে বান্দরবান থেকে সরাসরি কঙ্বাজার যেতে পারছে৷এ সময় সার্বিক যোগাযোগ অবকাঠামোর ক্ষয়ক্ষতি ও ঘাটতি আগামী অর্থবছরেই আমূল পরিবর্তন হবে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের৷ সেই সঙ্গে সার্বিক যোগাযোগ ব্যবস্থায় চলা সমস্যা-ক্রুটির কথাও স্বীকার করেন তিনি৷

এদিকে,যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের নাম পরিবর্তন করেছে সরকার৷ এ মন্ত্রণালয়ের নাম পরিবর্তন করে নতুন নাম দেওয়া হয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়৷আর সড়ক বিভাগের নাম করা হয়েছে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ৷ বুধবার মন্ত্রিপরিষদ সচিব স্বাক্ষরিত এ বিষয়ক একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়৷

এর আগে কয়েক মাস আগে যোগাযোগ মন্ত্রণালয় ও সড়ক বিভাগ নাম পরিবর্তনের প্রস্তাব পাঠায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে৷ এরপর বিষয়টি নিয়ে আলোচনার পর গত ২০ আগস্ট রাষ্ট্রপ্রতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূঁইঞা প্রস্তাব পাঠান৷প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৮ আগস্ট প্রস্তাব অনুমোদন করেন৷ এরপর সোমবার (১ সেপ্টেম্বর) রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ প্রস্তাবটি অনুমোদন দেন৷রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের পর মঙ্গলবার (২ সেপ্টেম্বর) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ প্রজ্ঞাপন জারির প্রস্তুতি সম্পন্ন করে৷

এ প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, মিনিষ্ট্রি অব কমিউনিকেশনস পরিবর্তন করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় (গরহরংঃত্‍ু ড়ভ জড়ধফ ঞত্‍ধহংঢ়ড়ত্‍ঃ ্ ইত্‍রফমব) এবং রোড ডিভিশন পরিবর্তন করে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ (জড়ধফ ঞত্‍ধহংঢ়ড়ত্‍ঃ ধহফ ঐরমযধিুং উরারঃরড়হ) করা হলো৷

২০১১ সালের ডিসেম্বরে যোগাযোগ মন্ত্রণালয়কে ভেঙে নতুন রেল মন্ত্রণালয় গঠন করে সরকার৷ প্রথম রেল মন্ত্রনালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী নিযুক্ত হন সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত৷সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত রেল মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব ছেড়ে দিলে মহাজোট সরকারের শেষ মেয়াদ পর্যন্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করেন ওবায়দুল কাদের৷এরপর গত ১২ জানুয়ারি বর্তমান সরকারের সময় রেল মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান মুজিবুল হক৷ মুজিবুল হক এখনও এ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে রয়েছেন৷