২০১৮ সালের মধ্যে পদ্মা সেতু চলাচলের উপযোগী হবে : কাদের

obaidul kader

দৈনিকবার্তা-মুন্সীগঞ্জ, ৫সেপ্টেম্বর: আগামী ২০১৮ সালের মধ্যে পদ্মা সেতুর কাজ শেষ করে চলাচলের জন্য উন্মোক্ত করে দেয়া হবে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতু বিষয়ক মন্ত্রণালয়েরমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের৷ শুক্রবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়ায় অস্থায়ী ফেরি ঘাটের সংযোগ সড়কের কাজ পরিদর্শন গিয়ে এ কথা বলেন তিনি৷

মন্ত্রী বলেন,পদ্মা সেতু নির্মাণের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নদী শাসন কাজের প্রক্রিয়া চূড়ান্ত হয়েছে৷ নদী শাসন কাজে আগ্রহী তিনটি আর্থিক প্রস্তাবকারী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সর্বনিম্ন দরদাতা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না সিনো হাইড্রো কোম্পানিকে সুপারিশ করে যাচাই-বাছাই কমিটি আগামী সপ্তাহের মধ্যে ক্রয় কমিটিতে পাঠাবে৷

আট হাজার, ৭০০, ৭ কোটি ৮১ লাখ টাকার আর্থিক প্রস্তাব দিয়েছে চায়না ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো৷ এ আর্থিক প্রস্তাব নদী শাসনের জন্য প্রাথমিক প্রস্তাবিত বাজেটের চেয়ে প্রায় ১০% কম বলে জানান মন্ত্রী৷

তিনি বলেন, ক্রয় কমিটির আনুষ্ঠানিক পক্রিয়া শেষে প্রধানমন্ত্রী চূড়ান্ত অনুমোদন পেলেই নির্ধারিত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে দ্রুত কার্যাদেশ দেয়া হবে৷সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, খুব শিঘ্রই পদ্মা সেতুর সয়েল টেস্টের কাজ শুরু হবে৷ ইতিমধ্যে চায়না থেকে সেতু নির্মাণের যন্ত্রপাতির প্রথম শিপমেন্ট চট্রগ্রামে এসে পৌছেছে৷ আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে যন্ত্রপাতির দ্বিতীয় শিপমেন্ট এসে পৌছবে৷ নদী শাসনের জন্য নিম্ন দরদাতা হিসাবে চীনের সিনোহাইড্রো ও কোরিয়ার হুন্দাই দু’টি কোম্পানির সুপারিশ পাওয়া গেছে৷

প্রধানমন্ত্রীর চূড়ানত্ম অনুমোদনের জন্য দুই দিনের মধ্যে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ক্রয় কমিটিতে পাঠানো হবে৷

এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতু বিভাগের ঢাকা বিভাগীয় অতিরিক্ত নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আফতাব উদ্দিন খান, নদী শাসনে নির্বাহী প্রকৌশলী শারফুল ইসলাম, মুন্সীগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী নুরম্নল হক, পদ্মা সেতু কাজের তত্ত্বাবধানে থাকা সেনা কর্মকর্তাসহ সংশিস্নষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ৷ পরে মন্ত্রী ধসেপড়া টঙ্গীবাড়ি বেইলি ব্রিজের সংস্কার কাজ পরিদর্শন করার জন্য রওনা হন ৷