সাত খুন: র্যাবের গ্রেফতারকৃত এসআই ৮ দিনের রিমান্ডে

0
32

51146

দৈনিকবার্তা-নারায়ণগঞ্জ, ৬সেপ্টেম্বর: নারায়ণগঞ্জে সাতজনকে অপহরণ করে হত্যা ও লাশ গুমের ঘটনায় গ্রেফতারকৃত র্যাবের এসআই পূর্ণেন্দু বালাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৮দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত৷১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে শনিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইদুজ্জামান শরীফের আদালতে পাঠানো হয়৷ শুনানি শেষে ৮ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন তিনি৷

সেভেন মার্ডারের ঘটনায় প্যানেল মেয়র নজরুলের স্ত্রী সেলিনা ইসলাম ফতুল্লা মডেল থানায় কাউন্সিলর নূর হোসেনকে প্রধান আসামি করে মামলা দায়ের করেন৷ ওই মামলাতেই পূর্ণেন্দু বালাকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ৷মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুনুর রশিদ মন্ডল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন৷এদিকে পূর্ণেন্দু বালা নামের ওই এসআইকে গ্রেফতার কোন সংস্থা করেছে সেটা নিয়েও রয়েছে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য৷ র্যাব ও মামলার তদন্তকারী সংস্থা ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করেছে দাবি করছে৷ র্যাব বলছে, শুক্রবার দুপুরে ঢাকা থেকে তাকে আটক করা হয়েছে৷ আর ডিবি পুলিশ বলছে, শুক্রবার রাতে তাকে গ্রেফতার করেছে৷

এ নিয়ে র্যাবের ১০ সদস্যকে ফেতার করা হয়েছে সেভেন মার্ডারের ঘটনায়৷ তার মধ্যে ৯জন ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন৷সাত খুনের ঘটনায় র্যপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র্যাব) আরেক সদস্যকে আটক করা হয়েছে৷শনিবার সকালে র্যাবের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো মোবাইলে ফোনে এসএমে এ তথ্য জানানো হয়েছে৷

আটককৃত র্যাব সদস্যের নাম পূর্ণেন্দু বালা৷ তিনি র্যাবের উপপরিদর্শক (এসআই) হিসেবে কর্মরত৷ গতকাল শুক্রবার দুপুরে ঢাকা থেকে তাকে আটক করা হয়৷এর আগে এ ঘটনায় করা পৃথক দুটি মামলায় র্যাব-১১ এর আট জনকে গ্রেপ্তার করা হয়৷

প্রথম দফায় গ্রেপ্তার করা হয় র্যাব-১১ এর সাবেক অধিনায়ক লে. কর্নেল তারেক সাঈদ মোহাম্মদ, মেজর আরিফ হোসেন ও লে. কমান্ডার এমএম রানা৷ এ তিন জনই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিজেদের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে৷

গত ২৬ আগস্ট গভীর রাতে র্যাবের আরো ৫ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়৷তারা হলেন হাবিলদার মো. এমদাদুল হক, ল্যান্স নায়েক মো. বেলাল হোসেন ও হিরা মিয়া এবং সেপাই আবু তৈয়ব আলী ও মো. আরিফ হোসেন৷ এদের মধ্যে এমদাদ ও আবু তৈয়ব বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি), আরিফ নৌবাহিনীর এবং ল্যান্স নায়েক মো. বেলাল হোসেন ও হিরা মিয়া আনসার বাহিনীর সদস্য৷ সাত খুনের ঘটনার পর আবু তৈয়ব ও হিরা মিয়াকে নিজ নিজ বাহিনীতে ফেরত পাঠানো হয়েছিল৷ অন্য তিন জন র্যাবের কর্মরত ছিলেন৷

র্যাবের এ ৫ সদস্য আদালতে দাবি করেছেন, সাতজনকে অপহরণের পর হত্যা ও লাশ গুম করতে র্যাব-১১ এর শীর্ষ তিন কর্মকর্তা তাদের বাধ্য করেছিলেন৷ তারা ঘটনার বর্ণনা করতে গিয়ে আদালতে কেঁদে ফেলেন৷ পরে সাত খুনের ঘটনায় করা পৃথক দুটি মামলায় এ ৫ জনের আট দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত৷

উল্লেখ, গত ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, আইনজীবী চন্দন সরকারসহ সাত জনকে অপহরণ করা হয়৷ এর তিন দিন পর ৩০ এপ্রিল শীতলক্ষ্যা নদী থেকে ৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়৷ এক দিন পর উদ্ধার করা হয় আরও একটি লাশ৷

এদিকে, নারায়ণগঞ্জে সাত খুন মামলার অন্যতম আসামি র্যাবের কর্মকর্তা ল্যান্স নায়েক বিল্লাল হোসেন শনিবার কারাগারে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন৷ তার কয়েদি নং- ২৫৮৮/১৪৷পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে৷বিল্লাল হোসেনের ভাগিনা আরিফ বলেন, শনিবার দুপুরে বিল্লাল হোসেন নিজের গলায় ছুরি চালিয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেন৷ এ সময় কর্তব্যরত কারারক্ষী মঞ্জু তাকে বাঁচায়৷পরে কারারক্ষী মঞ্জু ও নুরুল তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন৷