২৭ বছরের প্রবাস জীবনের ইতি টানলেন বাংলা এক্সপ্রেস এর সম্পাদক হারুন ভাই।

IMG_4394

দৈনিকবার্তা-শারজাহ (নিজস্ব সংবাদদাতা), ২ জানুয়ারি: গত ১ জানুয়ারী ২০১৫ শারজাহ এর বাইতি হোটেলের বলরুমে বাংলা এক্সপ্রেস পাঠক ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে পত্রিকার সম্পাদক এর সম্মানে এক বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও উপস্থাপক নাজমুল হক এর উপস্থাপনার এ অনুষ্ঠানেরসভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা আলহাজ্ব মাজহারুল্লাহ মিয়া। প্রধান অতিথি ছিলেন সিলেট বিভাগ উন্নয়ন পরিষদের সিনিয়র সহ সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল করিম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিল দুবাই এর সিনিয়র সহ সভাপতি মোঃ আইউব আলী বাবুল, এন আর বি দুবাই এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি প্রকৌশলী আব্দুস সালাম খান, বাংলাদেশ কমিউনিটির অন্যতম নেতা আল মামুন সরকার, কাজী মোহাম্মদ আলী, এ এম আব্দুল্লাহ, প্রকৌশলী ফারুক মাহমুদ চৌধুরী।

সংবর্ধিত অতিথি বিশিষ্ট কলামিষ্ট, আমিরাতের একমাত্র বাংলা ইংরেজী দ্বিভাষিক পত্রিকা বাংলা এক্সপ্রেস সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ হারুনুর রশীদ তার বক্তব্যে বলেন, বিগত ২৭টি বছর আপনাদের সাথে কাটিয়েছি,চলার পথে আমি আমার পত্রিকা বাংলা এক্সপ্রেস এর মাধ্যমে চেষ্টা করেছি আমিরাতে প্রবাসী দশ লক্ষ বাংলাদেশীকে দলমত নির্বিশেষে একই প্লাটফর্মে নিয়ে আসতে। প্রবাসীদেরমাঝে লুকিয়ে থাকা হাজারো প্রতিভাকে জন সমক্ষে নিয়ে আসতে। আমি জানি না তাতে কতটুকু সক্ষম হয়েছি, তবে আজকে আপনারা আমাকে যে ভালবাসা ও সম্মান দেখিয়েছেন তাতে প্রতীয়মান হয় যে, হয়তো আমি অনেকটাই সফল হয়েছি। সংবর্ধিত অতিথি প্রসংগে বলতে গিয়ে পাঠক ফোরামের সভাপতি এম এ হক বলেন, বাংলা এক্সপ্রেস পত্রিকাটি আমিরাতে প্রবাসী বাংলাদেশীদের একমাত্র মুখপত্র হিসেবে কাজ করেছে। আশা করি আমাদের সম্পাদক সাহেব দেশে গিয়ে এ পত্রিকাটিকে আরো সমৃদ্ধ করবেন এবং মাসিক থেকে সাপ্তাহিক করার জন্য সচেষ্ট হবেন। আমরা আশা করছি এ পত্রিকাটি পরবর্তিতে আমিরাতে আরো বেশী করে পৌছানোর ব্যবস্থা করবেন।

বক্তাগণ আরো বলেন, হারুন ভাই দেশে যাবার পূর্বেই আমাদের পদক্ষেপ নেয়া দরকার যে, তার অনুপস্থিতিতে এ পত্রিকাটি আমিরাতে কিভাবে পৌছবে, এর সম্প্রসারণ কিভাবে করা যাবে এ সম্পর্কে তিনি আমাদেরকে দিক নির্দেশনা দিয়ে যাবেন। তার জীবনের সিংহ ভাগই তিনি কাটিয়েছেন আমিরাতে, এবং তার অধিকাংশ সময়ই তিনি ব্যয় করেছেন বাংলা এক্সপ্রেসকে নিয়ে। নিজস্ব অর্থায়নে পত্রিকাটির প্রকাশনা করে আমাদেরকে বিভিন্ন ধরণের সহযোগিতায় বাধিত করেছেন। কমিউনিটির জন্য তার অবদানের কথা আমরা বলিয়ে ফুরাতে পারবো না।

তিনি যেখানেই থাকেন, যে কাজেই থাকেন আমরা তার সর্বদাই সুন্দর ভবিষ্যত ও সুস্বাস্থ্য কামনা করছি। এরপর পাঠক ফোরামের নেতৃবৃন্দ একটি মানপত্র ও একটি ক্রেস্ট প্রদান করেন।