গণতন্ত্র রক্ষায় জনগণ যে কোন ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত: হাছান মাহমুদ

hasan-mahmud_97304_0_109513_0

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ৩ জানুয়ারি: আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন, বিএনপি গণতন্ত্রকে হত্যা করার জন্য আগামী ৫ জানুয়ারি দেশে বিশেষ পরিস্থিতি তৈরি করতে চায়৷

তিনি শনিবার সকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বীরউত্তম খাজা নিজামুদ্দিন মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে ‘অপপ্রচার-ষড়যন্ত্র করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বাধাগ্রসত্ম করা যাবে না’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন৷তিনি বলেন, বিএনপি গত ৫ জানুয়ারির আগে দেশে বিশেষ পরিস্থিতি তৈরি করে অগণতান্ত্রিক সরকারকে ক্ষমতায় আনার ষড়যন্ত্র করেছিল৷

তিনি আরো বলেন, দেশের মানুষ যেভাবে অনির্বাচিত সরকারকে ৰমতায় আনার ষড়যন্ত্র প্রতিহত করেছে সেভাবে ভবিষ্যতেও যে কোন ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করবে৷জোটের সাধারণ সম্পাদক অরম্নণ সরকার রানার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহ সম্পাদক ও অগ্রণী ব্যাংক লিমিডের পরিচালক বলরাম পোদ্দার, কৃষক লীগ নেতা এমএ করিম, বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদের সভাপতি মো. জিন্নাত আলী প্রমুখ৷

ড.হাছান বলেন, বিএনপি দেশে বিশেষ পরিস্থিতি তৈরি করে গত ৫ জানুয়ারীর নির্বাচন বানচাল করে গণতন্ত্রকে হত্যা করে অগণতান্ত্রিক সরকারকে ক্ষমতায় আনার ষড়যন্ত্র করেছিল৷তিনি বলেন, দেশের জনগণ বিএনপির সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে গণতন্ত্রকে রক্ষা করেছে৷ দেশ বিশেষ পরিস’িতির কবলে পড়ে নি৷ গণতন্ত্রকে রক্ষায় অতীতের মতো বর্তমানেও দেশের মানুষ যেকোন ত্যাগ স্বীকার করার জন্য প্রস্তুত রয়েছে৷

বিএনপি নেত্রী বেগম জিয়ার সাত দফা দাবীর মধ্যে তার হতাশা প্রকাশ পেয়েছে উল্লেখ করে হাছান বলেন, বিএনপি নেত্রীর এ কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে জনগণের ওপর আস্থাহীনতাও প্রকাশ পেয়েছে৷

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ কাউকে রাজনীতি থেকে মাইনাস করার রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না৷ তবে কেউ নিজে নিজেকে মাইনাস করলে এবং নিজ দলের নেতা-কর্মী এবং সাধারণ মানুষ মাইনাস করলে কারো কিছু করার থাকে না৷হাছান বলেন, গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের গণতন্ত্র রক্ষা পেয়েছে এবং গণতান্ত্রিক রাজনীতির বিজয় অর্জিত হয়েছে৷ তাই আগামী ৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের বিজয় দিবস হিসেবে এ দিনটিকে পালন করবে৷

তিনি বলেন, এ দিন বিএনপি-জামায়াত দেশে কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে চেষ্ঠা করলে তাদের সমুচিত জবাব দেয়া হবে৷ ৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ ও সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের রাজপথে থেকে গণতন্ত্রের বিজয়কে সুসংহত করার জন্য তিনি আহবান জানান৷