অবরোধ-হরতালের কারনে এখনো ইজতেমাস্থলে মুসুলস্নীদের আশানুরম্নপ সমাগম ঘটে নি

বিশ্ব ইজতেমা

দৈনিকবার্তা-গাজীপুর, ৬ জানুয়ারি: আর মাত্র একদিন পরই শুক্রবার হতে গাজীপুরের টঙ্গীতে শুরম্ন হতে যাচ্ছে এবারের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব৷ অথচ এখনো (মঙ্গলবার বিকেল পর্যনত্ম) টঙ্গীর ইজতেমাস্থলে মুসুলস্নীদের আশানুরম্নপ সমাগম ঘটে নি৷ বিএনপির ডাকা অনির্দিষ্টকালের অবরোধ ও বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়কে গাড়ি ভাংচুর এবং অগি্নসংযোগের শঙ্কায় দূরপালস্ন্লার অধিকাংশ যান চলাচল বন্ধ রয়েছে৷ ফলে বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে অসংখ্য মুসুলস্নী মঙ্গলবার বিকেল পর্যনত্ম টঙ্গীর ইজতেমাস্থলে এসে পৌছতে পারেন নি৷ সংশিস্নষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরে টঙ্গীর ইজতেমাস্থলে মুসুলস্নীদের আশানুরম্নপ সমাগম মঙ্গলবার বিকেল পর্যনত্ম ঘটে নি৷ বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট মঙ্গলবার হতে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবরোধের ডাক দেয়৷ এছাড়াও কয়েকটি জেলায় মঙ্গলবার হরতাল ও বিৰোভ কর্মসূচি ছিল৷ এতে দেশের বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়কে গাড়ি ভাংচুর এবং অগি্নসংযোগের শঙ্কায় দূরপালস্ন্লার যানসহ অধিকাংশ গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়৷ ফলে প্রথম পর্বের বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে গাজীপুরের টঙ্গীর উদ্দেশ্যে রওনা হয়েও গাড়ি না পেয়ে দেশের বিভিন্নস্থানে অসংখ্য মুসুলস্নী আটকা পড়ে বিপাকে পড়েছেন৷ একই কারনে বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে আসা বিদেশি মুসুলস্নীদের পাশাপাশি ভারত ফেরত যাত্রীরা আটকা পড়েছেন বেনাপোল স্থল বন্দরে৷ বিভিন্নস্থানে আটকা পড়া মুসুলস্নীদের নানা ভোগানত্মিতে পড়তে হয়৷ মঙ্গলবার থেকে ঢাকামুখী যান চলাচল আকস্মিক ভাবে পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়৷ নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে যোগ দিতে আটকা পড়া এসব মুসুলস্নীদের অনেকেই বিকল্প উপায়ে ইজতেমাস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা হন৷ এব্যপারে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক নুরম্নল ইসলাম জানান, অবরোধের প্রভাব গাজীপুরে না পড়লেও দেশের বিভিন্নস্থানে গাড়ি ভাংচুর ও অগি্নসংযোগের শঙ্কায় বিভিন্ন প্রকার যান চলাচল বন্ধ থাকায় ইজতেমাস্থলে আসতে মুসুলস্নীদের কিছুটা দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে৷ ইতোমধ্যে বিভিন্ন উপায়ে মুসুলস্নীরা ইজতেমাস্থলে এসে পৌছতে শুরম্ন করেছেন৷ তবে আশা করছি শীঘ্রই মুসুলস্নীদের দুর্ভোগ লাঘব হবে৷ তিনি ইজতেমার বিষয়টি বিবেচনা করে অবরোধ কর্মসূচি প্রত্যাহারের জন্য সংশিস্নষ্টদেও প্রতি আহবান জানিয়েছেন৷ উলেস্নখ্য, গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে এবার প্রথম দফায় ৯ হতে ১১ জানুয়ারি এবং দ্বিতীয় দফায় ১৬ হতে ১৮ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে৷