ইটিভির চেয়ারম্যান সালাম কারাগারে, রিমান্ড শুনানি বৃহস্পতিবার

abdussalam-etv_19888

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ৬ জানুয়ারি: পর্নোগ্রাফি আইনের একটি মামলায়গ্রেপ্তার বেসরকারি টেলিভিশন একুশে টিভির (ইটিভি)চেয়ারম্যানআবদুস সালামকে করাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত৷ক্যান্টনমেন্ট থানায় দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে সালামকে আদালতে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করে পুলিশ৷ তবে মামলায় ডায়রি না থাকায় রিমান্ড আবেদনের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়নি৷

আগামী ৮ জানুয়ারি এ মামলার রিমান্ড ও জামিন আবেদনের শুনানির দিন ধার্য করেছের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহের নিগার সূচনা৷

মঙ্গলবার (৬ জানুয়ারি) দুপুরে আবদুস সালামকে ঢাকার সিএমএম আদালতে হাজির করে ৭ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়৷ প্রয়োজনীয় কেস ডকেট না থাকায় বৃহস্পতিবার রিমান্ড আবেদনের শুনানির দিন ধার্য করেন মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহের নিগার সূচনা৷ একইসঙ্গে আকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত৷ সোমবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তাকে ধরে নিয়ে যায় সাদা পোশাক পরা ১০ থেকে ১৫ জন ব্যক্তি৷

আবদুস সালামকে ধরে নিয়ে যাওয়ার কথা ডিবি প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে স্বীকার করে জানায়, তাকে পর্নোগ্রাফি আইনের একটি মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ইটিভির সূত্র জানায়, সোমবার রাত সাড়ে তিনটার দিকে আবদুস সালাম তার কার্যালয় থেকে বের হয়ে বাসায় যাওয়ার সময় নিচ থেকে তাকে গাড়িসহ নিয়ে যাওয়া হয়৷ এসময় তার গাড়ি চালককে নামিয়ে দেয়া হয়৷

এ বিষয়ে ইটিভির চিফ ফ্যাসিলিটিজ কো-অর্ডিনেটর সাঈদ মুন্না বলেছিলেন, ডিবির উপ কমিশনার মাসুদর রহমান (মিডিয়া) গ্রেপ্তারের বিষয়টি স্বীকার করেছেন৷ একুশে টিভির অনুষ্ঠান একুশের চোখে পরিবেশিত এক প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে রাজধানীর ক্যান্টনমেন্ট থানায় দায়ের করা একটি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ দুপুরে তাকে আদালতে নেয়া হবে৷

তিনি জানান, একুশের চোখে গত ৪ অক্টোবর একটি প্রতিবেদন পরিবেশিত হয়৷ পরে ৬ নভ্ম্বের এটি পুনরায় পরিবেশন করা হয়৷ এর প্রেক্ষিতে রাজধানীর ১৬ নভেম্বর একজন নারী বাদী হয়ে ক্যান্টনমেন্ট থানায় পর্নোগ্রাফি আইনে একটি মামলা করেন৷ মামলা নং ১৪৷ এ মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে আবদুস সালামকে৷

ক্যান্টনমেন্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুর রহমান মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ওই মামলাতেই আব্দুস সালামকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে৷ মামলাটি বর্তমানে গোয়েন্দা পুলিশ তদন্ত করছে৷

এদিকে,বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল একুশে টেলিভিশনের (ইটিভি)চেয়ারম্যান আবদুস সালামকে গ্রেফতারের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া৷মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়৷

বিবৃতিতে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন,গণতান্ত্রিক সভ্য সমাজে স্বাধীন মত প্রকাশ ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা স্বীকৃত গণতান্ত্রিক অধিকার৷ বর্তমান সরকারের আমলে জনগণের সব অধিকার ফ্যাসিবাদী কায়দায় হরণ করা হয়েছে৷ রুদ্ধ করা হয়েছে নির্ভিকভাবে মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে৷বিবৃতিতে তিনি বলেন, এর আগে আওয়ামী লীগ সরকার দেশের জনপ্রিয় পত্রিকা দৈনিক আমার দেশ বন্ধ এবং সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে গ্রেফতার করে অন্তরীণ রেখেছে৷ এছাড়া বেসরকারি টিভি চ্যানেল ওয়ান, দিগন্ত টিভি ও ইসলামিক টিভি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে৷ সব গণমাধ্যমকে কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে৷

বিরোধী দল ও মত দমনে এ ধরনের অন্যায় ও ন্যাক্কারজনক কর্মকাণ্ড গণতন্ত্রের জন্য কখনোই শুভ নয়৷তাই সমপ্রতি বন্ধ করে দেওয়া একুশে টিভি’সহ সব বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দেওয়া এবং গ্রেফতার করা একুশে টিভির চেয়ারম্যান আবদুস সালামসহ সব সাংবাদিকের নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানান খালেদা জিয়া৷