একনেক বৈঠকে পাঁচটি প্রকল্প অনুমোদন

26-1420506526

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ৬ জানুয়ারি: জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (একনেক) মঙ্গলবার ১,৩৫৪ কোটি টাকার পাঁচটি উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন করেছে৷একনেক চেয়ারপার্সন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আজ রাজধানীর শেরে বাংলানগরে একনেক সম্মেলন কৰে অনুষ্ঠিত একনেকের সভায় এই অনুমোদন দেয়া হয়৷বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুসত্মফা কামাল সাংবাদিকদের জানান, মোট প্রকল্প ব্যয়ের মধ্যে ১,৩২৫ কোটি টাকা পাওয়া যাবে রাষ্ট্রীয় তহবিল থেকে এবং ২৯ কোটি টাকা পাওয়া যাবে প্রকল্প সহায়তা হিসেবে৷অর্থ পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান ব্রিফিং অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন৷

ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যনত্ম সময়ে এডিপি বাসত্মবায়নের হার দাঁড়িয়েছে ২৮ ভাগ৷ বিগত অর্থবছরে এই সময়ে এডিপি বাসত্মবায়নের হার ছিল ২৫ ভাগ৷তিনি জানান, এ সময়ে প্রায় ২৩,৭৪৫ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়েছে৷ বিগত অর্থবছরের এই সময়ে ব্যয় হয়েছিল ১৮,৮২৫ কোটি টাকা৷ চলতি অর্থবছরে প্রকল্প বাসত্মবায়নের হার শতভাগ হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন৷

ডিসেম্বর মাসে মূল্যস্ফীতির হার সম্পর্কে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, এই ডিসেম্বরে মূল্যস্ফীতির হার হ্রাস পেয়ে ৬.১১ ভাগ হয়েছে৷ গত বছরের ডিসেম্বরে এই হার ছিল ৬.২১ ভাগ৷পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, জেলায় পুরনো ও ভাঙ্গাচোরা ব্রিজ-কালভার্টের জায়গায় ৩৪টি পিসি গার্ডার ব্রিজ, ৯টি আরসিসি ব্রিজ ও ১০টি আরসিসি বঙ্ কালভার্ট নির্মাণ করা হবে৷সড়ক ও জনপথ বিভাগ ২০১৭ সালের ডিসেম্বর নাগাদ এগুলো নির্মাণ করবে৷ এতে ব্যয় হবে ১৯০.২৮ কোটি টাকা৷ সরকার পুরো ব্যয় বহন করবে৷

একনেক আরেকটি প্রকল্প অনুমোদন করেছে৷ প্রকল্পের শিরোনাম হলো ‘ইমপ্রুফমেন্ট কমপোনেন্ট ফর ভালনারেবল গ্রম্নপ ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম৷’ এতে ব্যয় হবে ৩৮.৮৯ কোটি টাকা৷ ২০১৮ সালের জুন মাস নাগাদ নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় এটি বাসত্মবায়ন করবে৷এই প্রকল্পের আওতায় সরকার চৌহালী ও বেলকুচি উপজেলার অতিদরিদ্র নারীদের তাদের দারিদ্র্য থেকে বের হয়ে আসতে সহায়তা করবে৷

এই দুই উপজেলার ২১ হাজার দুঃস’ নারীর প্রত্যেককে তাদের জীবনযাত্রা নির্বাহের উপায় খুঁজে বের করতে ১৫ হাজার টাকা করে দেয়া হবে৷একনেক-এর বৈঠকে আরো একটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়৷ এর শিরোনাম ‘ফার্দার ডেভেলপমেন্ট অব ইসলামিক ইউনিভার্সিটি (দ্বিতীয় পর্যায়) ‘৷ এতে ব্যয় হবে ৭০.৫৮ কোটি টাকা৷ ২০১৯ সালের জুন মাস নাগাদ এই প্রকল্প যৌথভাবে বাসত্মবায়ন করবে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়৷

এই প্রকল্পের আওতায় একটি ৫-তলা ছাত্র হোস্টেল, একটি ৫-তলা ছাত্রী হোস্টেল এবং শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের জন্য একটি ১০-তলা কোয়ার্টার নির্মাণ করা হবে৷বৈঠকে অনুমোদিত অন্য প্রকল্পগুলো হলো কুষ্টিয়া শহরে বাইপাস সড়ক নির্মাণ এবং শিৰার মানোন্নয়নের জন্য জেলা সদর দফতরগুলোতে সরকারি পোস্ট-গ্রাজুয়েট কলেজগুলোর উন্নয়ন৷ প্রথমটিতে ব্যয় হবে ৭৮.৩০ কোটি টাকা এবং দ্বিতীয়টিতে ব্যয় হবে ৯৭৬.৫৭ কোটি টাকা৷বৈঠকে মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা যোগ দেন৷ এছাড়া এতে উপস্থিত ছিলেন সংশ্লিষ্ট সচিবরা৷