শিল্পকলায় নন্দন শিল্পকলা

303530_494097007309893_1511079851_n

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ৬ জানুয়ারি: বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে সদ্যনির্মিত দেশের প্রথম ভাসমান ‘নন্দন মঞ্চ’ আগামী ১২ জানুয়ারি উদ্বোধন করা হবে৷বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে সদ্যনির্মিত এই মঞ্চ ও জলাধারকে ঘিরে প্রায় দেড় হাজার দর্শকের বসার ব্যবস্থা৷ মঞ্চের দু’পাশে রয়েছে গ্রীণরম্নম ও লাইট স্ট্যান্ড৷ এ মঞ্চটির চারপাশে থাকবে নান্দনিক ঝর্ণা, পানির নীচে রং-বেরঙের আধুনিক লাইট৷ এছাড়া ও সংস্কারকৃত পুকুরটিতে নন্দন মঞ্চের নীচে মোট ১৫টি ওয়াটার ফাউন্টেন থাকবে৷

সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. রণজিত্‍ কুমার বিশ্বাস বলেন, সংস্কৃতি মন্ত্রীর পরিকল্পনা ও সহায়তায় নির্মিত এই ‘নন্দন মঞ্চ’ বাংলাদেশে একটি ইউনিক জিনিস হবে৷ নাটক ও অন্যান্য পরিবেশনা জলপরিবেষ্ঠিত অবস্থায় প্রস্তুতকৃত একটি মঞ্চে উপস্থাপনের উদ্যোগ হিসেবে এটি অনন্য৷

আগামী ১২ জানুয়ারি সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এ মঞ্চের উদ্বোধন করবেন বলেও সচিব উলেস্নখ করেন৷

শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক নাট্য ব্যক্তিত্ব লিয়াকত আলী লাকী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১২ সালে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত ‘মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক জাতীয় নাট্যোত্‍সব উদ্বোধন করতে আসেন৷ সেসময় তিনি একাডেমি মাঠের দক্ষিণ পাশে পরিত্যক্ত পুকুর দেখে সেখানে নান্দনিক কিছু একটা নির্মাণের প্রসত্মাব দেন৷ প্রধান মন্ত্রীর নির্দেশে সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরের পরিকল্পনা ও মন্ত্রণালয়ের সহায়তায় এই মঞ্চ নির্মাণ করা হয়েছে৷

প্রধানমন্ত্রীর নান্দনিক কিছু করার ধারনা থেকেই সংস্কৃতি মন্ত্রী এ মঞ্চের নাম নন্দন মঞ্চ’ দিয়েছে বলে তিনি উলেস্নখ করেন৷তিনি জানান, ২০১৪ সালের মার্চ মাস থেকে শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে এ মঞ্চ নির্মাণের কাজ শুরু হয় ৷ এই মঞ্চ নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১ কোটি ৮ লৰ ২৬ হাজার টাকা৷

তিনি বলেন,একাডেমিতে বিশাল আকৃতির ভবনসমূহ নির্মাণ হলেও এখানে কোন জলাধার নেই৷ দূর্ঘটনাবশত কোন অগি্নকান্ডের ঘটনা ঘটলে তা নির্বাপনের জন্য প্রয়োজনীয় পানি সরবরাহেরও ব্যবস্থা নেই৷নন্দনমঞ্চটি নির্মাণের ফলে একদিকে যেমন সৌন্দর্য বর্ধন হবে, অন্যদিকে অগি্ন প্রতিরোধেও সহায়ক ভূমিকা পালন করবে৷