সরকারের মারমুখী আচরণে জনমনে চরম আতঙ্ক: এরশাদ

জাতীয়-পার্টির-চেয়ারম্যান-হুসেইন-মুহম্মদ-এরশাদ

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ৬ জানুয়ারি:  জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উপদেষ্টা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন৷ তিনি বলেছেন,ঔপনিবেশিক আমলের সেই হরতাল-অবরোধের মতো নেতিবাচক অপরাজনীতি আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে৷অপরদিকে সরকারও অসহিষ্ণু হয়ে বিরোধী পক্ষের ওপর মারমুখী আচরণ চালাতে শুরু করেছে৷ এর ফলে জনমনে চরম আতঙ্ক-অনিশ্চয়তা নেমে আসছে৷মঙ্গলবার বিকেলে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এরশাদ এসব কথা বলেন৷তিনি বলেন,আমি গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছি যে, দেশ আবার চরম রাজনৈতিক সংঘাত, অস্থিরতা, হানাহানির দিকে অগ্রসর হচ্ছে৷ নতুন বছরের শুরু থেকেই এই সংঘাতের রাজনীতি শুরু হয়েছে৷এই অবস্থায় একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশ চলতে পারেনা এবং সংঘাত ও গণতন্ত্রও একসাথে চলতে পারেনা৷ সংঘাতের রাজনীতির কারণে গণতন্ত্র এখন বিপন্ন হয়ে পড়ছে৷ এই কারণে ইতিমধ্যে অনেক প্রাণহানির ঘটনাও ঘটে গেছে৷ এ ধরনের ঘটনায় আমি দুঃখিত ও মর্মাহত বলেন এরশাদ৷সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বর্জনকারীরা সরকারবিরোধী আন্দোলনের নামে জনগণকে জিম্মি করার মতো কর্মসূচি গ্রহণ করছে৷ অপরদিকে সরকারও প্রতিপক্ষকে দমনের নামে আগ্রাসীদের মতো ভূমিকা পালন করছে৷ আমরা এর কোনোটাকেই মেনে নিতে পারি না৷ দেশবাসী শান্তি চায়, নিরাপত্তা চায় এবং তারা দেশে সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক পরিবেশ দেখতে চায়৷এরশাদ মনে করেন জনগণের স্বার্থের কথা চিন্তা করে উভয় পক্ষকেই নমনীয় এবং শান্ত থাকতে হবে৷ সব দলের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা মাধ্যমে সংকট নিরসনে শান্তিপূর্ণ পন্থা অবলম্বন করতে হবে৷ প্রতিবাদের ভাষা পরিবর্তন করতে হবে৷তিনি বলেন, আমি ১ জানুয়ারি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত মহাসমাবেশেই আশংকা করেছিলাম যে, ৫ জানুয়ারিকে কেন্দ্র করে দেশে আবার সংঘাতময় পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে৷ আমার সেই আশংকাই সত্য প্রমাণিত হয়েছে৷ দেশের চলমান সংকট নিরসনে এক টেবিলে আলোচনায় বসতে সব দলের নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান এরশাদ৷