এখনো অবরুদ্ধ খালেদা জিয়া

9f0b48ee7ca64f4f276b38e010a72e72-1

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ৭ জানুয়ারি: গুলশানের নিজ কার্যালয়ে এখনো অববরুদ্ধ হয়ে আছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া৷ বাহির থেকে গেইটে লাগানো পুলিশের তালাগুলো ঝুলছে৷ কার্যালয়ে কাউকে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না পুলিশ৷শনিবার রাত ১১ টা থেকে এ প্রতিবেদন লেখা পযন্ত অবরুদ্ধ হয়ে আছেন বিএনপি নেত্রী৷

৮৬ নং সড়কের ৬ নম্বরের এই বাসাটি খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়৷ চারদিন ধরে কার্যালয়ের সামনে এক সারিতে মহিলা পুলিশ ও অন্য সারিতে পুরুষ পুলিশের দল নিয়ে দুই স্তরের নিরাপত্তা বসানো হয়েছে৷ জলকামান ও পুলিশের বড় লরি রাস্তার ওপর আড়াআড়িভাবে রেখে ৮৬ নং সড়কে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে৷ সাধারণ মানুষজনকেও বিকল্প পথে চলাচল করতে অনুরোধ জানাচ্ছে পুলিশ সদস্যরা ৷

রাস্তার দুই মোড়ে পুলিশের কয়েকটি পিকআপ ও সাঁজোয়া যান রাখা হয়েছে৷ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বুধবারও তার গুলশান রাজনৈতিক কার্যালয়ে অবস্থান করছেন৷দুপুরে বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে দেখা করতে আফম ইউসুফ হায়দারের নেতৃত্বে ৬ সদস্যের শিক্ষক প্রতিনিধি দল কার্যালয়ে যান৷ এর কিছুক্ষণ পরই সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহ খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত্‍ করেন৷

পরে খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা মেজর জেনারেল ফজলে এলাহী আকবর কার্যালয়ে প্রবেশ করেন৷এদিকে, গত শনিবার রাত থেকেই খালেদা জিয়া তার গুলশান কার্যালয়ে অবস্থান করছেন৷ কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করছেন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা৷তবে শিথিল করা হয়েছে ৫ জানুয়ারিকে ঘিরে বিএনপির গুলশান কার্যলয়ের সামনে নেয়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা৷

এদিকে, প্রফেসর ডা. সিরাজ উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসেন বেগম খালেদা জিয়া শারীরিকভাবে অনেক অসুস্থ৷ তিনি এখনও শ্বাসকষ্টে ভুগছেন এবং তার চোখ দিয়ে কিছুক্ষণ পরপর পানি পড়ছে৷বুধবার বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি৷ডা. সিরাজ উদ্দিন বলেন, ম্যাডামের চিকিত্‍সা চলছে৷হাসপাতালে নেওয়া হবে কি না এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ম্যাডামের মেডিকেল বোর্ড আছে তারা এ বিষয় বলতে পারবেন৷

বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে কার্যালয়ে আছেন, দলের ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, আবদুল কাইয়ুম,চেয়ারপারসনের প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেল, খালেদা জিয়ার বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, শামসুল আল আমীন ডিউ, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানাসহ সংগঠনের কয়েকজন নেত্রী৷

উল্লেখ্য,গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে গত ৪ দিন ধরে অবরুদ্ধ অবস্থায় আছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া৷ সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠজন ও গুলশান কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, তার শ্বাসকষ্টজনিত ও ঠাণ্ডাজনিত অসুস্থতা রয়েছে৷ এ কারণে ঠিকমতো গত দুই দিন ধরে খাওয়া-দাওয়া করতে পারছেন না তিনি৷সর্বশেষ গত ৫ জানুয়ারি গুলশান কার্যালয় থেকে বের হয়ে নয়াপল্টনে যাওয়ার চেষ্টা করলেও মূল ফটকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর বাধার কারণে তিনি বের হতে পারেন নি৷ প্রতিবাদে সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবরোধ কর্মসূচির ঘোষণা দেন তিনি৷

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার বর্তমান অবস্থা দেশের গণতন্ত্রের জন্য অশনি সংকেত বলে উল্লেখ করেছেন বিশিষ্ট সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ৷ বুধবার দুপুরে গুলশানস্থ বিএনপি চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে বের হয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন মাহফুজ উল্লাহ৷

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার মত নেত্রীর এ অবস্থা গণতন্ত্রের জন্য অশনি সংকেত৷ তিনি খুবই গুরুতর অসুস্থ৷ তার এ অসুস্থতার জন্য আমরা বিচলিত বোধ করছে৷ আর এ অসুস্থতার জন্য পুলিশের পিপার স্প্রেকে দায়ী করেছেন তিনি৷ এর আগে বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ খালেদা জিয়ার সাথে দেখা করতে তার কার্যালয়ে প্রবেশ করেন৷

খালেদা জিয়া অসুস্থ তবে তিনি মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েননি বলে জানালেন তার সঙ্গে দেখা করে আসা বিএনপিপন্থি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের সংগঠন ইউনিভার্সিটি টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইউট্যাব) এর সভাপতি আ ফ ম ইউসুফ হায়দার৷

বুধবার দুপুরে গুলশানের ৮৬ নম্বর রোডস্থ বিএনপি চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে অবরুদ্ধ খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে যান ইউট্যাবের একটি প্রতিনিধি দল৷

দুপুর আড়াইটায় কার্যালয় থেকে বেরিয়ে ইউট্যাব সভাপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ-উপাচার্য আ ফ ম ইউসুফ হায়দার সাংবাদিকদের বলেন, বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থ৷ তিনি খুব বেশি কথা বলতে পারছেন না৷ তিনি দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন৷ আমরা সকালে ইউট্যাবের পক্ষ থেকে তার সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলাম৷ কিন্তু আমাদের মাত্র ছয়জনকে কার্যালয়ে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়৷ সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে খালেদা জিয়া অবরুদ্ধ নয়৷ তাহলে আমাদের প্রতিনিধি দলের অন্য সদস্যদের দেখা করতে দেয়া হলো না কেন?

তিনি আরও বলেন, খালেদা জিয়া অবিলম্বে নির্বাচনের আহ্বান জানিয়েছেন৷ পাশাপাশি মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও গণতান্ত্রিক অধিকার অক্ষুন্ন রাখারও আহ্বান জানান তিনি৷

খালেদা জিয়া মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছেন কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ইউসুফ হায়দার বলেন, তিনি ভেঙ্গে পড়েননি, শারীরিকভাবে অসুস্থ হলেও তিনি মানসিকভাবে শক্ত৷

উল্লেখ্য, বেলা সাড়ে ১২টার দিকে গুলশান কার্যালয়ে আসেন ইউট্যাব প্রতিনিধি দলটি৷ ইউট্যাব সভাপতি আ ফ ম ইউসুফ হায়দার ও সাধারণ সম্পাদক তাহমিনা আক্তার টফিসহ শিক্ষকদের প্রতিনিধি দলটি এ সময় খালেদা জিয়ার সাথে দেথা করতে চাইলে সেখানে দায়িত্বরত পুলিশ তাদের বাধা দেয়৷ পরে ঊধর্্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে পুলিশ কর্মকর্তারা ৫ জনকে ভেতরে ঢোকার অনুমতি দেয়৷ এর আগে বেলা ১১৪০ মিনিটে সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ খালেদা জিয়ার সাথে দেখা করতে যান৷

সর্বশেষ গত ৫ জানুয়ারি গুলশান কার্যালয় থেকে বের হয়ে নয়াপল্টনে যাওয়ার চেষ্টা করলেও মূল ফটকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর বাধার কারণে তিনি বের হতে পারেন নি৷ পরে তিনি সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবরোধ কর্মসূচির ঘোষণা দেন৷