অবরোধে সহিংসতার দায় বিএনপির: হানিফ

hanif-doc.thumbnail

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ৮ জানুয়ারি: আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ এম পি বলেছেন, বিএনপির অবরোধ কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে সকল সহিংসতার দায় দলের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকেই নিতে হবে৷

তিনি বলেন, আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস ১০ জানুয়ারি এবং গণতন্ত্রের বিজয় দিবস হিসেবে পালন করার জন্য প্রায় এক মাস আগে কর্মসূচি ঘোষণাা করেছিলাম৷তিনি বলেন, বিএনপি আমাদের কর্মসূচি ঘোষণার ১০ থেকে ১৫ দিন পর তারা তাদের পাল্টা কর্মসূচি দেয়৷ তাদের চলমান অবরোধ কর্মসূচির দায়ভার তাদেরই গ্রহণ করতে হবে৷

তিনি বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে আওয়ামী স্বেচছাসেবক লীগের এক যৌথসভায় এ কথা বলেন৷১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলৰে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভা সফল করার লৰ্যে আওয়ামী স্বেচছাসেবক লীগের এ যৌথসভা অনুষ্ঠিত হয়৷

সংগঠনের সভাপতি এডভোকেট মোলস্না মো. আবু কাওছারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত যৌথসভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী এবং ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম৷সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ এমপির পরিচালনায় যৌথসভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, স্বেচছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি মো. মতিউর রহমান মতি, মঈন উদ্দিন মঈন, সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম আজিম, সোহেল রানা টিপু, সাজ্জাদ সাকিব বাদশা প্রমুখ৷

গণমাধ্যমে বিএনপি নেতা তারেক রহমানের বক্তব্য প্রচারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় আদালতকে ধন্যবাদ জানিয়ে হানিফ বলেন, বিএনপি নামক দলটি বর্তমানে সন্ত্রাসী সংগঠনে পরিণত হয়েছে৷

তিনি বলেন,বিএনপি নেতারা আল কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনের সাথে তারেক রহমানের বক্তব্যকে তুলনা করায় বিএনপি যে সন্ত্রাসী সংগঠন সেটাই প্রমাণ হয়৷হানিফ বলেন, চোরাগোপ্তা হামলার মাধ্যমে মানষের জান-মালের ৰতি করা ছাড়া দেশে আন্দোলন করার মতো শক্তি বিএনপির নেই৷

তিনি বলেন, বিএনপির কর্মসূচি ঘোষণার পর তাদের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আশ্রয় নেন জাতীয় প্রেসক্লাবে আর যুগ্ম-মহাসচিব রম্নহুল কবির রিজভী আশ্রয় নেন ইউনাইটেড হাসপাতালে৷ তাই তাদের দিয়ে কোন আন্দোলন হবে না৷

হানিফ বলেন, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর দেশ স্বাধীন হলেও জাতি স্বাধীনতার প্রকৃত আনন্দ লাভ করে ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি৷ কেননা এদিন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশে ফিরে এসেছিলেন৷

তিনি বলেন,তাই এ দিনটি বাঙ্গালী জাতির কাছে একটি ঐতিহাসিক দিন এবং দেশের ইতিহাসের অবিচেছদ্য অঙ্গ৷হানিফ স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাসী সকলকে ১০ জানুয়ারি যথাযথ সম্মানের সাথে পালনের জন্য আহবান জানান৷