একনেক ১৮ হাজার ৪০৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ৫টি প্রকল্প অনুমোদন

LBN-244

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ১৩ জানুয়ারি: জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) ১৮ হাজার ৪০৪কোটি টাকা ব্যয়ে ৫টি প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে৷ এর মধ্যে ৪টি নতুন এবং ১টি সংশোধিত৷এসব প্রকল্প ব্যয়ের ১৪ হাজার ২১২ কোটি টাকা বাংলাদেশ সরকার এবং বাকী অর্থ ৪ হাজার ১৯২ কোটি টাকা প্রকল্প সাহায্য থেকে সংস্থান করা হবে৷

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলানগর এনইসি সম্মেলনকক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় এই অনুমোদন দেয়া হয়৷একনেক সভাশেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুসত্মফা কামাল এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তৃতীয় প্রাথমিক শিৰা উন্নয়ন কর্মসূচী(পিইডিপি – ৩)-১ম সংশোধিত প্রকল্প নিয়ে কথা বলেন৷তিনি বলেন, ‘মূল অনুমোদিত প্রকল্পে উপবৃত্তি কর্মসূচী এবং শিক্ষার জন্য খাদ্য কর্মসূচীতে যথাক্রমে ৩ হাজার ৩৫১ কোটি টাকা ও ১ হাজার ৯৫৭ কোটি টাকা বরাদ্দ ছিল৷ কিন্তু এ দুটো কর্মসূচীর জন্য আলাদা আলাদা প্রকল্প ইতোমধ্যে নেওয়া হয়েছে৷ এজন্যই সংশোধিত প্রকল্প থেকে এ দুটো কর্মসূচী বাদ দেয়া হয়েছে৷ ফলে প্রকল্প ব্যয় কমে এসেছে৷

প্রকল্পটির বাসত্মবায়নকাল এক বছর বাড়িয়ে জুন, ২০১৬ থেকে ডিসেম্বর ২০১৭ পর্যনত্ম করা হয়েছে৷ সময় বাড়ানোর কারণ হিসেবে মন্ত্রী বলেন, ২০১১ সালের জুলাই থেকে প্রকল্পটি শুরু হওয়ার কথা থাকলেও প্রকল্পটি অনুমোদিত হয় ২০১১ সালের আগস্ট মাসে৷ এ জন্য ওই অর্থ বছরে প্রকল্পটির অনুকূলে বরাদ্দ দেয়া যায়নি৷ ফলে প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি কিছুটা পিছিয়ে পড়ে, ফলে কাজ শেষ করতে অতিরিক্ত দেড় বছর প্রয়োজন হয়৷

তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার ২৬ হাজার ১৯৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা চালু করেছে৷ এসব বিদ্যালয়ের জন্য অতিরিক্ত ১জন করে প্রি-প্রাইমারী শিক্ষক নিয়োগ ও প্রশিক্ষণ এ প্রকল্প থেকে করায় প্রকল্পে কিছুটা সংশোধনী আনা হয়৷ এছাড়াও জাতীয়করণকৃত এই ২৬ হাজারের উপরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বাসত্মবায়নে শ্রেণীকৰ পর্যায়ে ল্যাপটপ, সাউন্ড সিস্টেম ও মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর এই প্রকল্পের আওতায় সরবরাহ করার সিদ্ধানত্ম হয়৷ এসব কারনে প্রকল্প সংশোধন করা হয়েছে বলে তিনি জানান৷

পরিকল্পনা মন্ত্রী জানান, এই প্রকল্পের মোট প্রকল্প সাহায্যের মধ্যে ২ হাজার ৬০৬ কোটি টাকা ঋণ এবং বাকি ১ হাজার ৫৮৬ কোটি টাকা অনুদান৷ এই ঋণ ও অনুদান দেবে দশটি উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা৷ সংস্থাগুলো হলো- এডিবি, আইডিএ, অস্ট্রেলিয়ান এইড, কানাডিয়ান সিডা, ডিএফআইডি, ইইউ, জাইকা, সুইডিস সিডা, জিপিই ও ইউনিসেফ৷প্রকল্পটি প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর বাসত্মবায়ন করছে৷

সংশোধিত এ প্রকল্পটি নিয়ে পরিকল্পনা মন্ত্রী আহম মুসত্মফা কামাল আরো বলেন, মূল প্রকল্পে মোট ৪৮ হাজার ৮৪ জন জনবলের উল্লেখ ছিল৷ সংশোধিত প্রকল্পে অতিরিক্ত ৩৩ হাজার ৪৪৮ জন বাড়িয়ে সর্বমোট ৮১ হাজার ৫৩২ জন জনবল নেয়া হবে৷ এর মধ্যে ৮০হাজার ৬০৫জন শিৰকের পদ স্বয়ংক্রিয়ভাবে রাজস্ব খাতে চলে যাবে৷ এছাড়া, ৫৫০ টি অন্যান্য পদও প্রকল্প বাসত্মবায়ন শেষে রাজস্ব বাজেটে স্থানানত্মরিত হবে৷একনেক সভায় শিৰা প্রতিষ্ঠান সংক্রানত্ম নতুন ৩টি প্রকল্পেরও অনুমোদন দেয় হয়৷ রংপুরে অবস্থিত বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি ছাত্রী হল নির্মাণ করতে যাচ্ছে সরকার ৷ এজন্যবেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ উন্নয়ন প্রকল্প নামক ৭৪ কোটি টাকার একটি প্রকল্পের অনুমোদন দেয় একনেক৷

সম্পূর্ণ সরকারি অর্থায়নে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন ও বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় জানুয়ারি, ২০১৫ থেকে জুন, ২০১৮ মেয়াদে প্রকল্পটি বাসত্মবায়ন করবে৷ ১০০০ আসনের ছাত্রী হল, ড.ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান গবেষণা ইনস্টিটিউট স্থাপন এবং কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ এবং ইলেকট্রনিঙ্ ও টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে গবেষণা ল্যাবরেটরিও এ প্রকল্পের আওতায় স্থাপিত হবে৷

এদিকে, ভোলায় একটি টেঙ্টাইল ইনস্টিটিউট তৈরি করবে সরকার৷ এ জন্য একনেকে আজ একটি প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়৷ প্রকল্পটির নাম ভোলা টেঙ্টাইল ইন্সটিটিউট স্থাপন প্রকল্প৷ সম্পূর্ণ সরকারি অর্থায়নে ৬৫ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটি বাসত্মবায়ন করবে বস্ত্র পরিদপ্তর৷ এর বাসত্মবায়ন কাল ধরা হয়েছে জুলাই, ২০১৪ থেকে জুন, ২০১৭ পর্যনত্ম৷ সভায় জানানো হয়, ভোলায় এ টেঙ্টাইল ইন্সটিটিউটটি স্থাপিত হলে প্রতি বছর ৮০ জন বস্ত্র প্রকৌশলী ও প্রযুক্তিবিদ তৈরী হবে৷

রাজশাহী ও চট্টগ্রামে আধুনিক প্রশিক্ষণ সুবিধাদিসহ দুটি ক্রীড়া স্কুল প্রতিষ্ঠা করবে সরকার৷ সম্পূর্ণ সরকারি অর্থায়নে ৭৯ কোটি টাকায় বিকেএসপি এটি বাসত্মবায়ন করবে৷ এর বাসত্মবায়ন কাল ধরা হয়েছে জুলাই, ২০১৪ থেকে জুন, ২০১৭ পর্যনত্ম৷একনেকে অনুমোদন পাওয়া অপর প্রকল্পটি হলো-চুয়াডাঙ্গায় একটি শিল্পনগরী স্থাপন করতে যাচ্ছে সরকার৷ অনুমোদিত প্রকল্পটির নাম বিসিক শিল্পনগরী, চুয়াডাঙ্গা৷ বাংলাদেশ ৰুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন(বিসিক) সম্পূর্ণ সরকারি অর্থায়নে ৩২ কোটি টাকায় জুলাই, ২০১৪ থেকে জুন, ২০১৭ মেয়াদে প্রকল্পটি বাসত্মবায়িত করবে৷

সভায় জানানো হয়, এ প্রকল্পের আওতায় ১৬৯টি ক্ষুদ্র ও মাঝারী শিল্প ইউনিট স্থাপন করা হবে৷ এর মধ্যে ৬০০০ বর্গফুটের এ টাইপ পস্নট থাকবে ৬২টি৷ ৪৫০০ বর্গফুটের বি টাইপ প্লট ৪৩টি৷ ৩০০০ বর্গফুটের সি টাইপ প্লট রয়েছে ৪৬টি৷ বাকি ১৮টি বিভিন্ন সাইজের এস টাইপ প্লট স্থাপিত হবে৷একনেক সভায় মন্ত্রীপরিষদের বিভিন্ন সদস্যসহ উচচ পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন৷