বিমস্টেকে আরো সহযোগিতা প্রদানে প্রস্তুত বাংলাদেশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

images

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ১৩ জানুয়ারি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মোহাম্মদ আলী বলেছেন,বাংলাদেশ বিমস্টেকে আরো সহযোগিতা প্রদানে প্রস্তুত রয়েছে৷তিনি বলেন, বিমস্টেকে আমাদের প্রধান লৰ্যসমূহের মধ্যে একটি হ”েছ বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়ানো৷ বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে যত শিগগির সম্ভব বিমস্টেক মুক্ত বাণিজ্য এলাকার বাসত্মবায়ন করা জরম্নরি৷

মন্ত্রী মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল এন্ড স্ট্রাটেজিক স্টাডিস (বিআইআইএসএস) মিলনায়তনে ‘বাংলাদেশ ও বিমস্টেক’ শিরোনামে দিনব্যাপী এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন৷

বিআইআইএসএস’র বোর্ড অব গভর্নরের চেয়ারম্যান রাষ্ট্রদূত মুন্সী ফয়েজ আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সেমিনারে বিমস্টেকের সেক্রেটারি জেনারেল বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন৷

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বিআইআইএসএস’র মহাপরিচালক মেজর জেনারেল একে এম আবদুর রহমান শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন৷পররাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ আঞ্চলিক সহযোগিতার বিষয়টিকে খুবই গুরুত্ব দেয়৷ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের নির্বাচনী ইশতেহারে এর প্রতিফলন ঘটেছে৷

তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দক্ষিণ এশিয়ায় শানত্মি, স্থিতিশীলতা ও জনগণের জীবন মান উন্নয়ন নিশ্চিত করতে আঞ্চলিক সহযোগিতার বিষয়টিতে অধিক গুরম্নত্ব দিয়েছিলেন৷মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ বিমস্টেক সার্ক ও বিসিআইএমইসির কাঠামোর মধ্যে আঞ্চলিক সহযোগিতা জোরদারে সবসময়ে ইতিবাচক ভূমিকা রেখে আসছে৷তিনি আরো বলেন, বিমস্টেকের সদস্য দেশসমূহ বিমস্টেকের সচিবালয় ঢাকায় করার সিদ্ধানত্ম নেয়ার পর থেকে বিমস্টেককে আরো শক্তিশালী করার ৰেত্রে বাংলাদেশ পুনঃপ্রতিশ্রম্নতি ব্যক্ত করেছে৷

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এ বছরের মাঝামাঝিতে অনুষ্ঠিতব্য বিমস্টেকের ৬ষ্ঠ বাণিজ্য ও অর্থমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের স্বাগত দেশ হবে বাংলাদেশ৷ ঢাকায় এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে৷ ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম দিকে ঢাকায় জ্বালানি সংক্রানত্ম একটি টাস্কফোর্স বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে৷ বৈঠকে বিমস্টেক এফটিএ সংক্রানত্ম গুরম্নত্বপূর্ণ চারটি চুক্তি স্বাৰরিত হবে এবং বিমস্টেক এনার্জি ও গ্রিড ইন্টারকানেকশন সংক্রানত্ম একটি এমওইউ চূড়ানত্ম হবে৷পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সহযোগিতার অপর ৰেত্রগুলো হলো পর্যটন এবং সদস্য দেশগুলোর জনগণের মধ্যে যোগাযোগ বাড়ানো৷

মন্ত্রী আরো বলেন, বিমস্টেকের কাঠামোর মধ্যে বাংলাদেশ দারিদ্র্য বিমোচন, আবহাওয়া পরিবর্তন, কৃষি, স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির মতো গুরম্নত্বপূর্ণ ৰেত্রে সহযোগিতা করছে৷

সেমিনারে পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক বিশেষজ্ঞ কূটনীতিক,গবেষক ও সাবেক আমলারা যোগ দেন৷বিমস্টেকের সাতটি সদস্য দেশ হচেছ বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, মিয়ানমার, নেপাল, শ্রীলংকা ও থাইল্যান্ড৷