10967907_1549160145331757_1672892122_n

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ৩১ জানুয়ারি: শাকিব খান টানা দ্বিতীয় বারের মত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। কিন্তু পরাজিত হয়েছেন তার গত মেয়াদের সহযোদ্ধা মিশা সওদাগর শেষপর্যন্ত পরাজয় নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়।মিশাকে হারিয়ে জয়ী হয়েছেন স্বতন্ত্রপ্রার্থীঅমিত হাসান।শাকিব প্যানেল থেকে অধিকাংশপ্রার্থী জয় লাভ করতে পারলেও মিশার পরাজয় বরণ অনেকের কাছে বিস্বয়ের কারন হয়ে দাড়ায়।

সভাপতি পদে শাকিব খানের প্রাপ্ত ভোট৩৫৬। প্রতিন্দ্বন্ধী আহমেদ শরীফের প্রাপ্তভোট মাত্র ৭১। অন্যদিকে সাধারণ সম্পাদকপদে অমিতের ভোট ২৪৭। আরমিশা সওদাগরের ১৮০।কোষাধ্যক্ষ আতিকুর রহমান চুন্নু পরাজিত হন স্বতন্ত্র প্রার্থী কমলের কাছে।পরাজয়ে প্রাপ্ত ভোটের ব্যবধান ছিল মাত্র ৩। এছাড়া কার্যকরী পরিষদের সদস্যপদে সর্বোচ্চ ৪০৭ পেয়ে ভোট নির্বাচিত হয়েছেন আলীরাজ।

প্রথমবারের মতনির্বাচন করে জয়লাভ করেছেন গ্লামার ববি,প্রাপ্তভোট ২৬৬ মৌসুমিও ৪০৩ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন। সহ-সভাপতি পদে বিজয়ী ওমর সানী পেয়েছেন ২৮৮ ভোট। তারপ্রতিন্দ্বন্ধী আবদুল্লাহ সাকী পেয়েছেন১৪৩ ভোট। সহ-সভাপতি পদে বিজয়ী নাদির খানপেয়েছেন ২৯০ ভোট। তারপ্রতিন্দ্বন্ধী দিলারা ইয়াসমিন পেয়েছেন১৩৩ ভোট। আরমান খান সহ-সাধারণ সম্পাদকবিনা প্রতিন্দ্বন্ধীতায় নির্বাচিত।

সাংগঠনিক সম্পাদক পদে বিজয়ী সুব্রত পেয়েছেন ৩৩৭ ভোট। তারপ্রতিন্দ্বন্ধী হরবোলা পেয়েছেন ৯০ ভোট।আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদকপদে বিজয়ী ডন পেয়েছেন ২৬৭ ভোট। তারপ্রতিন্দ্বন্ধী রিনা খান পেয়েছেন ১৯০ভোট। দপ্তর ও প্রচার সম্পাদকপদে বিজয়ী জ্যাকী আলমগীর পেয়েছেন৩৬০ ভোট।

সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক পদে বিজয়ী সানু শিবা পেয়েছেন ২৭৪ভোট। তার প্রতিন্দ্বন্ধী মোঃ সাইফুলপেয়েছেন ১৫৩ ভোট।কার্যকরী সদস্য পদে বিজয়ীরা হচ্ছেন আলীরাজ (৪০৭), আমির (৩২১), আফজাল শরীফ (৩৫৩), জেসমিন (৩৮০), মৌসুমী (৪০৩),রকিব খান (৩৮৯), শহিদুল আলম সাচ্চু (২৬০),ববি (২৬৬), ফরহাদ (৩৯৩), সুশান্ত (৩৩৩)।কার্যকরী সদস্যপদে হেরে যাওয়া প্রার্থীদের প্রাপ্তভোট নুর ইসলাম ২৫৪, রতন খান ২৫৩, সোহরাব৮৪, ডা এজাজ ১৫৩, হাসান জাহাঙ্গীর২০৫।

এর আগে ৩০ জানুয়ারি সকাল ৯টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হয় বিকাল ৫টায়।পবিত্রজুম্মার নামাজ ও মধ্যাহ্নভোজের জন্য বেলা ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত ছিলো বিরতি। এরপর আবার ভোটগ্রহণ শুরু হয়।মোট ভোটার ৫৮৩ জন,এদের ভিতর ভোট প্রদান করেন ৪৮৭জন ভোটার। এরমাঝে ৪২টি ভোট বাতিল হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়ি ছিলেন মিজু আহমেদ। তবে পরাজিত সভাপতি প্রার্থী আহম্মেদ শরিফ ভোট কেন্দে ঢোকার গেট দখলের অভিযোগ তুলেছেন।