ডডড8-600x400

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ৩১ জানুয়ারি: দেশের মানুষের জানমাল ও অধিকার রক্ষায় প্রয়োজনে সরকারকে শক্তি প্রয়োগের পক্ষে মত দিয়েছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান৷ শনিবার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মানবাধিকার কমিশনের আয়োজনে ‘শান্তির জন্য পদযাত্রা’ আয়োজিত এক পদযাত্রা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন৷ কর্মসূচিতে আরো বক্তব্য রাখেন মানবাধিকার কমিশনের সদস্য প্রফেসর মাহফুজা খানম, কাজী রিয়াজুল হক৷ পদযাত্রাটি জাতীয় জাদুঘরের সামনে থেকে শুরু হয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়৷ জাতীয় মানবাধিকার কমিশন ছাড়াও পদযাত্রায় বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের কর্মীরা অংশ নেন৷

সন্ত্রাস-সহিংসতা নয়, চাই শান্তি-নিরাপদ জীবন শ্লোগান নিয়ে রাজধানীতে র্যালি করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন, যাতে অংশ নিয়েছেন বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের কর্মীরাও৷এখনই সহিংসতা বন্ধের দাবি জানিয়ে ড. মিজান বলেন, সহিংসতা প্রতিরোধে দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে সরকারকে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে৷ দেশের মানুষের জানমাল ও অধিকার রক্ষার জন্য কোনো েেকানো ক্ষেত্রে শক্তি প্রয়োগ অপরিহার্য হয়ে পড়ে৷ তবে শক্তি প্রয়োগে যেন মানবাধিকার লঙ্ঘন না হয় সে দিকেও নজর দিতে হবে৷

সেইসঙ্গে আন্দোলনের নামে সংহিসতা বন্ধে বিএনপিসহ ২০ দলের প্রতিও আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা সামনে রেখে হরতাল-অবরোধের কর্মসূচি প্রত্যাহার করুন৷

হাতজোড় করে করজোড়ে মিনতি করে সহিংসতা বন্ধের আহবান জানিয়েছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান৷মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, হাতজোড় করে মিনতি করে বলছি, আপনারা সহিংসতা বন্ধ করুন৷ আপনাদের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ জাগ্রত হোক৷ সকল রাজনীতিবিদের প্রতি অনুরোধ, আপনারা পরম সহিষ্ণুতার পরিচয় দেবেন৷ গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ দেখাবেন৷

সহিংসতা বন্ধের জন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী যে নির্দেশ দিয়েছেন, তা উল্লেখ করে তিনি বলেন, সাধারণ মানুষের নিরাপত্তায় বৈধ পন্থায় শক্তি প্রয়াগ করুন৷ মানবাধিকার লঙ্ঘিত হয়, এমনভাবে শক্তি প্রয়োগ করবেন না৷

তিনি বলেন, আইনের মধ্যে থেকে বৈধ পন্থায় শক্তি প্রয়োগ করুন৷ সমানুপাতিকভাবে শক্তি প্রয়োগ করুন, যেন আইনের দৃষ্টিতে বেআইনি না হয়৷সহিংস আন্দোলনকারীদের উদ্দেশে মিজানুর রহমান বলেন, সাধারণ মানুষকে নিরাপত্তাহীনতায় ঠেলে দিয়ে গণতান্ত্রিক আন্দোলন হয় না৷ এভাবে গণতন্ত্র অর্জন সম্ভব নয়৷ শুভ বুদ্ধি, শুভ কৌশলের মাধ্যমে শুভ বিষয় অর্জন করতে হবে৷ এই উন্মাদনা, পাশবিকতা বন্ধ করতে হবে৷যারা উস্কে দিয়েছেন তাদের দায়-দায়িত্ব নিয়ে এসব বন্ধ করতে হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি৷

প্রায় ১৫ লাখ পরীক্ষার্থীর জীবন অনিশ্চয়তার মুখে চলে গেছে উল্লেখ করে ড. মিজানুর রহমান বলেন, আপনারা যদি জনগণের জন্য রাজনীতি করেন, তবে এসব কর্মসূচি প্রত্যাহার করুন৷ শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যত অনিশ্চিত করবেন না৷

ওই সমাবেশে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বলেন, রাজনৈতিক আন্দোলনের নামে এখন যা চলছে তা উন্মত্ততা, উন্মাদনা, পাশবিকতা৷ আমরা চাই শান্তি ফিরে আসুক৷হরতাল-অবরোধকারী রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি নাশকতার পথ থেকে সরে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সাধারণ মানুষকে মৃতু্যর মুখে ঠেলে দিয়ে, পেট্রোল বোমা মেরে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয়৷অশুভ কিছু দিয়ে শুভ কিছু অর্জন করা যায় না৷ শুভ কিছু অর্জন করতে হলে শুভ কৌশলেই করতে হবে৷

গত ৫ জানুয়ারি দশম সংসদ নির্বাচনের বর্ষপূর্তিতে ঢাকায় সমাবেশ করতে না পেরে সারাদেশে লাগাতার অবরোধের ডাক দেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া৷

এরপর থেকেই রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতিদিনই যাত্রবাহী বাস, ট্রাকে অবরোধকারীদেও ছোড়া পেট্রোল বোমায় পুড়ছে মানুষ৷ চলমান অবরোধে সহিংসতায় এ পর্যন্ত অন্তত ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ আহত হয়েছেন আরো অনেকে৷ ধারাবাহিকভাবে চলা সহিংসতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ এসেছে সমাজের অন্যান্য মহল থেকেও৷মানবাধিকারকর্মীদের পদযাত্রাটি বেলা ১১টায় শাহবাগ মোড় থেকে শুরু হয়৷ বাংলাদেশ মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, মানবাধিকার সমন্বয় পরিষদ, ফেডারেশন অব হিউম্যান রাইটস অর্গানাইজেশনসহ আরো কয়েকটি সংগঠনের শখানেক কর্মী পদযাত্রায় যোগ দেন৷

নাশকতা দমনে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীকে কঠোর হতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের প্রতি সমর্থন জানিয়ে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বলেন, সাধারণ মানুষের অধিকার রক্ষার জন্যই তারা এই নির্দেশ দিয়েছেন৷যারা আন্দোলন করছে, তাদের দায়িত্ব নিয়ে এ পথ থেকে সরে আসতে হবে৷প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত বুধবার পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক মতবিনিময়ে যে কোনো উপায়ে নাশকতা ঠেকাতে নির্দেশ দেন৷পুলিশ সপ্তাহ উপলক্ষে পরদিন বঙ্গভবনে এক অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদও নাশকতাকারীদের গণশত্রু আখ্যায়িত করে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান৷