image_188944.barnikat

দৈনিকবার্তা-ঢাকা, ১৮ ঢাকা ২০১৫: যুক্তরাষ্ট্র সরকার নতুন করে কোনো সতর্কবার্তা দেয়নি। আগের বার্তাটা শুধু নবায়ন করেছে। যুক্তরাষ্ট্র সরকার বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে তাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে। রোববার বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্সিয়া বার্নিকাট সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেছেন। যুক্তরাষ্ট্র কেন আবার বাংলাদেশে অবস্থানরত নাগরিকদের সতর্ক সংকেত দিল জানতে চাইলে তিনি এ কথা বলেন।রাজধানীর মহাখালীতে ব্র্যাক সেন্টারে নারীর ক্ষমতায়ন ও পুষ্টি নিরাপত্তা বিষয়ক এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন যুক্তরাষ্ট্রের এই রাষ্ট্রদূত। বাংলাদেশ অ্যালায়েন্স ফর উইমেন লিডারশিপ আয়োজিত ওই অনুষ্ঠান শেষে বের হওয়ার পর সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন তিনি।বার্নিকাট বলেন, বাংলাদেশে অবস্থানরত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী যে সহযোগিতা করছে তা সত্যিই সন্তোষজনক।

দুজন বিদেশি নাগরিককে হত্যার দায় স্বীকার করে আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন আইএস যে টুইটার বার্তা দিয়েছে তা বাংলাদেশ থেকে পাঠানো হয়েছিল। বাংলাদেশ পুলিশ সেই তথ্য বের করেছে। খুনিদের ধরার ব্যাপারেও অগ্রগতি আছে। এ ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের বক্তব্য কী জানতে চাইলে বার্নিকাট বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিউইয়র্কে দেওয়া সাম্প্রতিক বক্তৃতায় বলেছেন, সন্ত্রাসীদের কোনো দেশের ও ধর্মের সীমানা নেই। তাই তাঁদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সহযোগিতা বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছিলেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের সরকার এ ধরনের আহ্বানে সাড়া দিতে প্রস্তুত।মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ ঢাকাস্থ বেশ ক’টি বিদেশি দূতাবাস বাংলাদেশ সফর নিয়ে নিজ নিজ দেশের নাগরিকদের সতর্ক করলেও কোনো দেশেরই পররাষ্ট্র দপ্তর এ বিষয়ক কোনো ঘোষণা দেয়নি। রেড এলার্ট বা সতর্কতা জারি করা দেশগুলোর পররাষ্ট্র দপ্তরের ওয়েবসাইট পর্যবেক্ষণ করে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, ১৭ অক্টোবর ২০১৫ পর্যন্ত বর্তমানে বাংলাদেশ ভ্রমণে বিশ্বের কোন দেশেরই রেড এলার্ট বা ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি নেই। রীতি অনুযায়ী, কোনো দেশ তার নাগরিকদের নির্দিষ্ট কোনো দেশে ভ্রমণের ব্যাপারে সতর্কতা জারি করলে পররাষ্ট্র দপ্তরের মাধ্যমে ঘোষণা দেয়। তারপর সংশ্লিষ্ট দেশের কূটনৈতিক মিশন তা প্রচার করে। কিন্তু বাংলাদেশে সাম্প্রতিক দুই বিদেশি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বেশ ক’টি দেশের দূতাবাসই সরাসরি সতর্কতা জারি করে।উপরন্তু অনেক দেশেই ভ্রমণের ব্যাপারে সতর্কতা জারি থাকলেও বাংলাদেশের ব্যাপারে বেশি উৎসাহ দেখাতে শুরু করে বিভিন্ন মহল। বিষয়টি নানামুখী আলোচনার জন্ম দিয়েছে।মূলত বিদেশিদের জারি করা সতর্কতা নিয়ে এতো বেশি মাতামাতি বাংলাদেশের সাম্প্রতিক ইতিহাসে আগে কখনই দেখা যায়নি। আর বিদেশিদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগের ব্যাপারে কতিপয় মিডিয়া এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অহেতুক মাতামাতিও কিছুটা রহস্যজনক।

সব কিছু মিলিয়ে এটাই প্রতীয়মান হয় যে, ঘোলা পানিতে মাছ শিকারে তৎপর কোনো মহল বিদেশি হত্যাকাণ্ডের ইস্যুকে হাতিয়ার করে গোপন কোনো খেলায় মেতে উঠেছে। যার উদ্দেশ্য দেশের স্থিতিশীলতাকে বিঘিœত করা।মূল বক্তৃতায় বার্নিকাট বলেন, যুক্তরাষ্ট্র সরকার তাঁদের বৈদেশিক বিষয়ক উন্নয়ন সংস্থা ইউএসএআইডি’র মাধ্যমে ৩০ লাখ পরিবারে পুষ্টি ও খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ক সহযোগিতা পৌঁছে দিচ্ছে। বাংলাদেশ অ্যালায়েন্স ফর উইমেন লিডারশিপ এর মাধ্যমে ৫০ জন নারীকে পুষ্টি বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। যারা গ্রামের দরিদ্র নারীদের পুষ্টি বিষয়ক প্রশিক্ষণ এবং সহযোগিতা দেবে।অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ অ্যালায়েন্স ফর উইমেন লিডারশিপ এর নির্বাহী পরিচালক রাষ্ট্রদূত নাসিম ফেরদৌস। ইউএনউইমেন এর দেশীয় প্রতিনিধি ক্রিস্টিনা হান্টার এবং দেশের তিনটি এলাকা থেকে আসা প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নারী পুষ্টিবিদরা এতে বক্তব্য দেন।