হত্যা মামলায় ২০ বছর পর সাতজনের যাবজ্জীবন

0
91

দুই দশক আগের একটি হত্যা মামলায় সাত আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।রোববার চট্টগ্রামের তৃতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মুন্সী আবদুল মজিদ এ রায় দেন।দণ্ডিতরা হলেন- আবদুল হামিদ ওরফে বদাইয়া, নজির আহমদ মেম্বার, মাহবুবুর রহমান, ফজর রহমান, আবদুস শুক্কুর, শফিক আহমদ ও ফোরক আহমদ।বাদীপক্ষের আইনজীবী ইমতিয়াজ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, দণ্ডবিধির ৩০২/৩৪ ধারায় করা অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত সাত আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন।পাশাপাশি আসামিদের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন।

আইনজীবী ইমতিয়াজ জানান, দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে ফোরক আহমদ পলাতক। বাকিরা আদালতে হাজির ছিলেন।অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আবদুর রাজ্জাক নামের এক আসামিকে খালাসে দিয়েছে আদালত। এছাড়া মামলার আরেক আসামি আমজাদ হোসেন চেয়ারম্যান মারা যাওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।মামলার নথি থেকে জানা যায়, ১৯৯৭ সালের ২ এপ্রিল সকাল ৯টায় সাতকানিয়া উপজেলার মির্জাখিল এলাকার চন্দ্রতলি পাহাড়ে ছন কাটতে গেলে পূর্ব শত্রুতার জেরে কাছিম আলী ওরফে কাসেম আলীকে পিটিয়ে, কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করা হয়।এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী মজলিস খাতুন ওইদিনই মামলা করেন।১৯৯৮ সালের ১০ জানুয়ারি নয়জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। এ মামলায় অভিযোগ গঠন করা হয় ২০০২ সালের ২৭ মার্চ।