চীন উপকূলে পুড়ছে ট্যাঙ্কার, এখনো নিখোঁজ দুই বাংলাদেশি ক্রু

চীনের পূর্ব উপকূলে মালবাহী ফ্রেইটারের সঙ্গে সংঘর্ষে বিধ্বস্ত ইরানি তেলের ট্যাঙ্কার ‘সানচি’তে এখনো আগুন জ্বলছে। খারাপ আবহাওয়ার কারণে একদিকে ছড়িয়ে পড়া আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না। অন্যদিকে দুই বাংলাদেশিসহ ট্যাঙ্কারের ৩১ নিখোঁজ ক্রু’র উদ্ধার অভিযানও ব্যাহত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

চীনের পরিবহন মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যায় হংকংয়ের রেজিস্ট্রেশনযুক্ত ফ্রেইটার ‘সিএফ ক্রিস্টাল’-এর সঙ্গে ইরানের তেলের ট্যাঙ্কার ‘সানচি’র সংঘর্ষ হয়। প্রায় সাথে সাথেই পুরো ট্যাঙ্কারে আগুন ধরে যায়। সেই আগুন এখনো জ্বলছে। পানামার রেজিস্ট্রেশনযুক্ত ইরানি ট্যাঙ্কার সানচি ১ লাখ ৩৬ হাজার টন কনডেনসেট (অতি হালকা অপরিশোধিত তেল) নিয়ে ইরান থেকে সাউথ কোরিয়ার উদ্দেশে যাত্রা করছিল। যাত্রাপথে চীনের পূর্ব উপকূলে তীর থেকে ২৫৭ কিলোমিটার দূরে ক্রিস্টালের সঙ্গে সেটি ধাক্কা খায়। সংঘর্ষে ট্যাঙ্কারে বিস্ফোরণ হয় এবং ট্যাঙ্কার থেকে সমুদ্রে তেল ছড়িয়ে পড়ে। সেই তেলে লেগে যাওয়া আগুন এখনো নেভানো সম্ভব হয়নি।

মালবাহী ফ্রেইটার ক্রিস্টালের ২১ জন ক্রুর সবাইকে প্রথমদিকেই উদ্ধার করা সম্ভব হয়। তাদের সবাই চীনের নাগরিক। ৩০ ইরানি ও দুই বাংলাদেশি মিলে সানচির ক্রুদের ৩২ জনের সবাই প্রথমে নিখোঁজ থাকলেও সোমবার তাদের একজনের মৃতদেহ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

মঙ্গলবার চীনের পরিবহন মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তীব্র ঝড়ো হাওয়া, বৃষ্টি ও চার মিটার অবধি উঁচু ঢেউয়ের কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণ ও উদ্ধার চেষ্টা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। বর্তমানে ৯শ’ বর্গমাইল এলাকা জুড়ে উদ্ধার অভিযান চলছে বলেও জানানো হয়েছে। সংঘর্ষের কারণ এখনো জানা না গেলেও এই ঘটনায় সমুদ্রের পানি দূষণ এবং এর ফলে ওই এলাকায় ভয়াবহ পরিবেশগত বিপর্যয় ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।