২ হাজারে দ্রুততম মুমিনুল

মাইলফলকটি খানিকটা দূরেই ছিল। প্রয়োজন ছিল ১৬০ রান। অসাধারণ ব্যাটিংয়ে সিরিজের প্রথম দিনেই কাঙ্খিত সেই ঠিকানায় পৌঁছে গেলেন মুমিনুল হক। রেকর্ড গড়ে ছুঁলেন ২ হাজার টেস্ট রান।
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনের শেষ দিকে রঙ্গনা হেরাথের বলে বেরিয়ে এসে দারুণ ছক্কায় স্পর্শ করেছেন ২ হাজার রান।এই মাইলফলকে বাংলাদেশের দ্রুততম মুমিনুল, লেগেছে তার ৪৭ ইনিংস। ৫৩ ইনিংসে ২ হাজার করে আগের রেকর্ড ছিল তামিম ইকবালের।১ হাজারেও বাংলাদেশের দ্রুততম ছিলেন মুমিনুল। লেগেছিল ২১ ইনিংস। পরের হাজারে লাগল ২৬ ইনিংস।২৬ টেস্টের ক্যারিয়ারে এদিন নিজের প ম টেস্ট সে ুরি করেছেন মুমিনুল। চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ঝড়ো সূচনা করেছিল বাংলাদেশ। রীতিমতো ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাটিং করছিলেন তামিম ইকবাল। উদ্বোধনী জুটিতে তামিম ও ইমরুল জমা করেছিলেন ৭২ রান। গড়ে দিয়েছিলেন শক্ত ভীত। এই ৭২ রানের ৫২ রানই এসেছে তামিমের ব্যাট থেকে। ১৬তম ওভারে দিলরুয়ান পেরেরার বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরেছিলেন তামিম। দ্বিতীয় উইকেটে মুমিনুল হকের সঙ্গে জুটি বেঁধে ইমরুল যোগ করেছিলেন আরো ৪৮ রান। ২৮তম ওভারে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফেরার আগে ইমরুল করেছেন ৪০ রান। দুই ওপেনারের উইকেট হারানোর পরও দাপুটে ব্যাটিং অব্যাহত রেখেছে বাংলাদেশ। তৃতীয় উইকেটে মুমিনুল ও মুশফিক গড়েছিলেন ২৩৬ রানের দারুণ জুটি। তৃতীয় উইকেটে এটিই বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ জুটির নতুন রেকর্ড।
তবে শতকের খুব কাছাকাছি গিয়েও হতাশ হতে হয়েছে সাবেক অধিনায়ক মুশফিককে। ৯২ রান করে ধরতে হয়েছে সাজঘরের পথ। তবে মুমিনুল শতক তো বটেই, এখন ছুটে চলেছেন দ্বিশতক করার পথে। প্রথম দিনের খেলা শেষে ১৭৫ রান করে অপরাজিত আছেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।