মহাশূন্যে দেখা গেল টেসলা গাড়িটি

মঙ্গলের কক্ষপথের দিকে ছুড়ে দেওয়া হয়েছিল স্পেসএক্স-এর ফ্যালকন হেভি রকেটে করে পাঠানো টেসলা রোডস্টার গাড়িটিকে। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনার একটি পর্যবেক্ষণাগার থেকে মহাকাশে গাড়িটি দেখা গেছে বলে এবার খবর বেরিয়েছে। মহাকাশবিষয়ক খবরের সাইট স্পেইস ডটকম-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, টেনাগরা অবজারভেটরি নামের ওই পর্যবেক্ষণাগার থেকে ভার্চুয়াল টেলিস্কোপ প্রজেক্ট-এর মাধ্যমে টেসলা প্রধান ইলন মাস্ক-এর ওই গাড়িটি শনাক্ত করা হয়।

রকেট উৎক্ষেপণকালে গাড়ির চালকের আসনে বসানো হয় মহাকাশ অভিযাত্রীদের পোশাক পরানো এক মানবমূর্তি। রেডিওতে ছাড়া হয় ডেভিড বাউয়ি’র একটি গান। সূর্যের কাছাকাছি একটি ডিম্বাকৃতির কক্ষপথে মানবমূর্তিসহ টেসলাটিকে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এই গাড়ি মূলত মঙ্গলের কাছাকাছি একটি কক্ষপথের উদ্দেশ্যে ছাড়া হয়েছিল। কিন্তু ফ্যালকন হেভি রকেটের তৃতীয় ইঞ্জিনের শক্তি ওই কক্ষপথে ছাড়িয়ে একে গভীর মহাকাশে পাঠিয়ে দেয়, চলতি সপ্তাহের শুরুতে এমনটাই বলেছিলেন টেসলা প্রধান ও মার্কিন প্রকৌশলী মাস্ক।

রোবোটিক প্রযুক্তিতে নিয়ন্ত্রিত একটি টেলিস্কোপের মাধ্যমে রোডস্টারের নতুন অবস্থান পর্যবেক্ষণ করা হয়। এতে দেখা যায়, রাতের মহাকাশে গাড়িটি উড়ে যাচ্ছে। ভার্চুয়াল টেলিস্কোপ প্রজেক্ট কর্তৃপক্ষ বলে- “সূর্যের কাছকাছি নিজের বর্তমান কক্ষপথে নক্ষত্রটি থেকে গাড়িটি ৯.১৩ কোটি থেকে ১৬.১৫ কোটি মাইল ভ্রমণ করবে।”

নাসার জেট প্রোপালশন ল্যাবরেটরি থেকে সোলার সিস্টেমস ডাইনামিকস ল্যাবরেটরি-এর মাধ্যমে সরবরাহ করা ডেটা ব্যবহার করে গাড়িটির একদম সঠিক অবস্থান শনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছেন ভার্চুয়াল টেলিস্কোপ প্রজেট-এর গিয়ানলুসা মাসি আর টেনাগরা অবজারভেটরি’র মাইকেল শোয়ার্টজ। টেসলা গাড়িটিকে দেখতে ‘বেশ উজ্জ্ল’ দেখাচ্ছিল বলে জানিয়েছে প্রকল্প কর্তৃপক্ষ।