গাজীপুরের বিপসটে সেনাবাহিনীর ‘অনুশীলন শান্তিদূত-৪’ এর সমাপ্তি

গাজীপুরের রাজেন্দ্রপুর সেনানিবাসে বিশ্বের ২২টি দেশের সেনাবাহিনীর অংশগ্রহণে ‘অনুশীলন শান্তিদূত-৪’ সম্পন্ন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা প্রফেসর ড. গরহর রিজভী সোমবার এ অনুশীলনের আনুষ্ঠাণিক সমাপ্তি ঘোষণা করেন। রাজেন্দ্রপুর সেনানিবাসে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব পিস সাপোর্ট অপারেশন ট্রেনিং (বিপসট) এর প্যারেড গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত ওই সমাপনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক এবং ইউএস পলিটিক্যাল মিলিটারি এফ্যায়ার্স ব্যুরোর গ্লোবাল প্রোগ্রাম এন্ড ইনিশিয়োটভ এর পরিচালক মি. মাইকেল এল স্মিথ বক্তব্য রাখেন। এসময় বিপসটের কমান্ডেন্ট মেজর জেনারেল মোঃ এনায়েত উল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে গাজীপুরের রাজেন্দ্রপুর সেনানিবাসস্থিত বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব পিস সাপোর্ট অপারেশন ট্রেনিং (বিপসট) এ ‘অনুশীলন শান্তিদূত-৪’ প্রশিক্ষণ শুরু হয়। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে নিয়োজিত শান্তিরক্ষীদের কৌশলগত দক্ষতা বৃদ্ধি করাই শান্তিদূত-৪ এর উদ্দেশ্য। প্রায় দু’সপ্তাহব্যাপি এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে বাংলাদেশ, ইউএসএ, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ কোরিয়া, নিউজিল্যান্ড, অষ্ট্রেলিয়া, কম্বোডিয়া, ফিজি, মালয়েশিয়া, শ্রীলংকাসহ বিশে^র ২২টি দেশের ১ হাজার ৩১৯ জন অংশগ্রহণ করেন। অনুশীলন ফিল্ড ট্রেনিং ইভেন্ট (এফটিই), স্টাফ ট্রেনিং ইভেন্ট (এসটিই) এবং ক্রিটিক্যাল এনাবেলার ক্যাপাবিলিটি এনহান্সমেন্ট (২সিই)- এ তিনটি ভাগে একই সময়ে পরিচালিত হয়। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রশিক্ষণার্থীদের সমাপনী কুচকাওয়াজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠাণে অংশগ্রহণকারীদের মাঝে সনদ বিতরণ করা হয়।

‘অনুশীলন শান্তিদূত-৪’ এর মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী দেশসমূহের মধ্যে আঞ্চলিক বন্ধন, নিরাপত্তা ও শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে বহুলাংশে বৃদ্ধি পাবে। ফিল্ড ট্রেনিং ইভেন্ট প্রশিক্ষণে বিভিন্ন ধরণের লেইন ট্রেনিংয়ের পাশাপাশি শান্তিরক্ষা কার্যক্রমের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বাস্তবধর্মী পরিস্থিতির আলোকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। বিপসটের মাধ্যমে প্রদানকৃত উন্নত প্রশিক্ষণ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে ভূমিকা পালনে অন্যতম সহায়ক হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

‘অনুশীলন শান্তিদূত-৪’ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনের উপর পরিচালিত একটি বহুজাতিক অনুশীলন, যা বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও ইউএস প্যাসিফিক কমান্ড (ইউএসপ্যাকম) কর্তৃক যৌথভাবে আয়োজিত গ্লোবাল পিস অপারেশনস ইনিশিয়েটিভ (জিপিওআই) এর পৃষ্ঠপোষকতায় শান্তিরক্ষা কার্যক্রমের উপর পরিচালিত বহুজাতিক অনুশীলন। এই অনুশীলনটি ইউএস প্যাসিফিক কমান্ড দ্বারা পরিচালিত মাল্টি ন্যাশনাল পিস কিপিং ইভেন্ট (এমপিই), যা প্রতিবছর এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের বিভিন্ন দেশে পরিচালিত হচ্ছে। ইতোপূর্বে বিপসটে ২০০২.২০০৮ ও ২০১২ সালে একই ধরনের অনুশীলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দেশের উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। দুই সপ্তাহ ব্যাপী এই অনুশীলন সোমবার সমাপ্ত হয়।