ইউএস-বাংলার কাঠমান্ডু ফ্লাইট আপাতত বন্ধ

বহরের একটি উড়োজাহাজ কাঠমান্ডুতে দুর্ঘটনায় পড়ে অর্ধশত মানুষ নিহত হওয়ার পর কাঠমান্ডুতে আপাতত ফ্লাইট না চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স।বাংলাদেশের বেসরকারি বিমান সংস্থাটির জনসংযোগ বিভাগের মহাব্যস্থাপক (জিএম) কামরুল ইসলাম বুধবার সংস্থার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের একথা জানান।ইউএস-বাংলার বিএস-২১১ ফ্লাইটটি গত সোমবার কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমানবন্দরে অবতরণের সময় বিধ্বস্ত হয়ে অর্ধশত নিহত হন। বিমানের পাইলটসহ চার কেবিন ক্রুর সবাই নিহত হন এই দুর্ঘটনায়।কামরুল বলেন, “ঢাকা-কাঠমান্ডু-ঢাকা রুটে আমাদের ফ্লাইট পরিচালনা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রয়েছে।এই দুর্ঘটনার পর দৃশ্যত উড়োজাহাজ সঙ্কটে পড়তে হয়েছে ইউএস-বাংলাকে। কেননা কানাডার বোম্বারডিয়ার কোম্পানির তৈরি যে ড্যাশ ৮-কিউ৪০০ উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়, সেদিন কাঠমান্ডুতে রওনা হওয়ার আগে অভ্যন্তরীণ দুটি ফ্লাইট চালানো হয়েছিল এটি দিয়ে।

কাঠমান্ডু ফ্লাইট আপাতত বন্ধ রাখলেও অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটগুলোতে ইউএস-বাংলার ফ্লাইটগুলো স্বাভাবিকভাবেই চলছে বলে জানান কামরুল।চার বছর আগে যাত্রা শুরু করা বিমান সংস্থাটি অভ্যন্তরীণ রুটের পাশাপাশি কলকাতা, সিঙ্গাপুর, ব্যাংকক, কুয়ালালামপুর, মাসকাট, দোহা রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করে।ইউ-এস বাংলার ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, বুধবার ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে সকাল সাড়ে ৭টা, সকাল ১০টা, বিকাল ৩টা, সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা, সন্ধ্যা ৬টায় এবং রাত পৌনে ৯টায় তাদের ফ্লাইট রয়েছে। পাশাপাশি যশোর, বরিশাল, সৈয়দপুর ও কক্সবাজারে তাদের ফ্লাইটও সচল।সকাল সাড়ে ৭টায় শাহজালাল বিমানবন্দর খেকে চট্টগ্রাম এবং সকাল ১১টায় কলকাতাগামী ফ্লাইট যাত্রা করেনি।

তবে ৭টা ৪০ মিনিটে যশোর, ৮টা ৪৫ মিনিটে সৈয়দপুর, ৮টা ৫০ মিনিটে কুয়ালালামপুর, সকাল ১০টায় চট্টগ্রাম, ১০টা ১০ মিনিটে যশোর, ১১টা ৩০ মিনিটে কক্সবাজার, ১২টা ১০ মিনিটে সৈয়দপুর, দুপুর ১টায় সিলেট, দুপুর ২টা ৪০ মিনিটে রাজশাহী, বিকাল ৩টায় চট্টগ্রাম, বিকাল ৩টা ৩০ মিনিটে সৈয়দপুরের উদ্দেশে ফ্লাইটগুলো যাত্রা করেছে।