সরকার ব্যাংকের সব টাকা লুট করেছে, লালমনিরহাটে এরশাদ

105

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ বলেছেন, বর্তমানে দেশের ব্যাংক গুলোতে টাকা নেই, সরকার সব লুটপাট করেছে। এমনকি আওয়ামীলীগের ছেলেরা রাস্তায় মেয়েদের আটকিয়ে ধর্ষন করে।মানুষ কথা বলতে পারে না, খুন হয়, গুম হয় অথচ পুলিশ মামলা নেয় না। ফলে বাধ্য হয়ে ১৪ বছরের মেয়েকে বিয়ে দিচ্ছে অভিভাবকরা। তাই আ’লীগকে আর ভোট দিবেন না। দেশের মানুষ পরিবর্তন চাই, তারা জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় দেখতে চায়।

সোমবার(১৬ এপ্রিল) বিকেলে লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার কুমড়িরহাট এসসি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে এক বিশাল জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।এরশাদ আরও বলেন মফিজ হয়ে আর থাকতে চাই না মফিজের কথা কেউ শুনতে চায় না। আবারও জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় আসবে। তার শাসনামলে জনগণ শান্তিতে ছিল। বর্তমানে উপজেলা চেয়ারম্যানদের কোন ক্ষমতা নেই, ইউএনওরা চালাচ্ছেন। এ উপজেলা পরিষদ চাই না, আগের উপজেলা দেখতে চাই। রংপুরে বিশাল ভোটের ব্যবধানে জাতীয় পার্টির প্রার্থী জয়লাভ করেছে। এখান থেকে জাতীয় পার্টি আবারও নতুন করে যাত্রা শুরু করেছে।

এরশাদ বলেন, জাতীয় পার্টি এখন জেগে উঠেছে। জাতীয় পার্টির প্রতি দেশবাসীর ভালবাসা প্রমান করে আগামী দিনে জাতীয় পার্টি সরকার গঠন করবে। দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়। এ জন্য লালমনিরহাটের ৩টি আসনে যথাক্রমে মেজর খালেদ আক্তার, রোকন উদ্দিন বাবুল ও জিএম কাদেরকে জাপার প্রার্থী ঘোষনা করে আগামী নির্বাচনে লাঙ্গলে ভোট চান এরশাদ।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, আমরা এমন উপজেলা চাই না। যেখানে উপজেলা চেয়ারম্যানরা বাসায় ঘুমায় আর ইউএনওরা উপজেলা চালায়। আমরা আবার সেই আগের উপজেলা পরিষদ গঠন করব। জাপা জেগে উঠেছে, এ বিশাল জনসমুদ্র সেটাই প্রমান করে। আমার জিবনে এত মানুষের সমাগম কোন জনসভায় দেখিনি। এ জনসমুদ্র দেখতে ও জাপাকে ক্ষমতায় পাঠাতে মহান আল্লাহ আমায় বেঁচে রেখেছেন। আপনাদের ভালবাসা দেখে নিজেকে ৪০ বছরের মানুষ মনে হচ্ছে। এ

জনসমুদ্র দেখে কথা বলার ভাষা ভুলে গেছি। তিনি গ্রাম গঞ্জের জনসভায় বিশাল লোকসংখ্যা দেখে আওয়ামী লীগকে চ্যালেঞ্চ ছুড়ে দিয়ে বলেন, এত বড় জনসভা কেউ করতে পারলে তিনি রাজনীতি ছেড়ে দেয়ার ঘোষনা দেন। এসময় তিনি তার কান কেটে ফেলারও ঘোষনা দেন। আদিতমারী উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে জনসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, জাতীয় পার্টির কো চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী জিএম কাদের। আদিতমারী উপজেলা জাতীয় পার্টি আয়োজিত এ জনসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, এলজিইডি প্রতিমন্ত্রী প্রেসিডিয়াম সদস্য মশিউর রহমান রাঙ্গা, প্রেসিডিয়াম সদস্য মেজর (অবঃ) খালেদ আক্তার, চেয়ারম্যানের রাজনৈতিক উপদেষ্টা ব্যারিষ্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী এমপি, রংপুর সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, লালমনিরহাট-২ আসনের সম্ভব্য প্রার্থী জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ন সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক রোকন উদ্দিন বাবুল, আদিতমারী উপজেলা জাপার সাধারন সম্পাদক আব্দুল্লাহ আলম মামুন প্রমুখ।

এর আগে এরশাদ নীলফামারীর জলঢাকা হয়ে তিস্তা ব্যারাজ অবসর রেষ্ট হাউজে দুপুরের খাবার শেষে সড়ক পথে জনসভা মঞ্চে উপস্থিত হন। জনসভা শেষে রংপুরের উদ্দেশ্যে রহনা দেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেন মোহাম্মদ এরশাদ।