রোহিঙ্গাদের সহায়তায় ২০ কোটি ডলার দিচ্ছে এডিবি

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সহায়তায় সরকারকে ২০ কোটি ডলার অনুদান দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)।বাংলাদেশ সরকারের অনুরোধে এই সহায়তা দেওয়া হচ্ছে বলে ম্যানিলা ভিত্তিক এই উন্নয়ন সংস্থাটির বাংলাদেশের আবাসিক প্রতিনিধি মনমোহন প্রকাশ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন। কোন কোন খাতে এই সহায়তা দেওয়া হবে তা ঠিক করতে তার নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল মঙ্গলবার কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের আশ্রয়কেন্দ্র সরেজমিন পরিদর্শনে গেছে সেখানে।মনমোহন বলেন, বাংলাদেশ সরকারের অনুরোধে এক মিলিয়ন রোহিঙ্গাদের সহায়তার জন্য আমরা (এডিবি) একটি উল্লেখযোগ্য পরিমাণ অনুদান দেব।একটি ব্যতিক্রমী ঘটনা বিবেচনায় নিয়ে সরকার এবং বিশ্ব ব্যাংকের সঙ্গে সমন্বয় করে এই সহায়তা দেওয়া হবে।

অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) এবং এডিবির কর্মকর্তারা জানান, প্রাথমিকভাবে ২০ কোটি (২০০ মিলিয়ন) ডলার অনুদান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।এডিবি প্রতিনিধিদল কক্সবাজারে মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয়কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। সেখান থেকে ফিরে এসে তারা রোহিঙ্গাদের সহায়তার জন্য কি ধরনের প্রকল্প দেওয়া প্রয়োজন তা ঠিক করা হবে বলে এডিবি কর্মকর্তারা জানান।গত ফেব্র“য়ারি মাসে ঢাকা সফরের সময় এডিবির প্রেসিডেন্ট তাকেহিকো নাকাও বলেছিলেন, বাংলাদেশ সরকার চাইলে এডিবি রোহিঙ্গাদের সহায়তায় এগিয়ে আসবে।তারই ধারাবাহিকতায় এডিবি রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সহায়তায় ২০ কোটি ডলার অনুদান দিচ্ছে।অন্যদিকে রোহিঙ্গাদের সহায়তায় বাংলাদেশকে ৪০ কোটি ডলার অনুদান দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক।গত ১৮ থেকে ২১ এপ্রিল ওয়াশিংটনে বিশ্ব ব্যাংক সদর দপ্তরে সংস্থাটির বসন্তকালীন সভায় এ অনুদান প্রস্তাব অনুমোদন পেয়েছে বলে ইআরডির অতিরিক্ত সচিব মাহমুদা বেগম জানিয়েছেন।মিয়ানমারে জাতিগত নিপীড়নের শিকার রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রায় চার লাখ মানুষ কয়েক দশক ধরে বাংলাদেশে বসবাস করছে। এর মধ্যে গত বছর অগাস্টে রাখাইনে তাদের ওপর দেশটির সেনাবাহিনীর দমন-পীড়ন শুরু হওয়ার পর আরও সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে এসেছে। বিপুল সংখ্যক এই রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে কক্সবাজার ও বান্দরবানের বিভিন্ন এলাকায় আশ্রয় দেওয়া হয়েছে।