কালিয়াকৈরে স্কুল ছাত্রীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা, বখাটে দুই যুবকের কারাদন্ড

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে এক স্কুল ছাত্রীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে বাড়িতে আটকে রেখে শ্লীলতাহানীর চেষ্টার অভিযোগে বখাটে দুই যুবককে কারাদন্ডাদেশ দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার দন্ডপ্রাপ্ত ওই দুই বখাটেকে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। গাজীপুরের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলো- কালিয়াকৈর উপজেলার শিমুলতলী এলাকার জাফর সিকদারের ছেলে রনি সিকদার (২২) ও একই এলাকার হরিপদ গোস্বামীর ছেলে পলাশ গোস্বামী (২০)। কালিয়াকৈর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, বেশ কিছুদিন ধরে কালিয়াকৈর উপজেলা শহর এলাকাস্থিত কালিয়াকৈর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে আসা যাওয়ার পথে ছাত্রীদের নানাভাবে উত্যাক্ত করে আসছিল বখাটে যুবক রনি ও তার সহযোগী পলাশ। সোমবার দুপুরে মধ্যাহ্ন বিরতি শেষে বিদ্যালয়ে ফিরার পথে দশম শ্রেণীর দুই ছাত্রীর পথরোধ করে ওই দুই যুবক। এসময় বখাটেরা জোরপূর্বক কিশোরী এক ছাত্রীকে টেনে হিঁচড়ে গলির ভিতরে নিয়ে যাওয়ার সময় অপর ছাত্রী পালিয়ে বিদ্যালয়ে গিয়ে শিক্ষকদের জানায়। এ ঘটনা জানতে পেরে বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও স্থানীয়রা সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং হরিপদ গোস্বামীর বাড়ির তালা বদ্ধ একটি কক্ষ থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করেন। এসময় এঘটনায় জড়িত থাকায় রনি ও পলাশকে আটক করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনে আটককৃতদের থানায় নিয়ে আসে। সন্ধ্যায় গাজীপুরের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ছাত্রীর শ্লীলতাহানীর চেষ্টার অভিযোগে (২০০৯ এর দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ৩৫৪ ধারা) রনি সিকদারকে দেড় বছর এবং পলাশ গোস্বামীকে এক বছর করে বিনাশ্রম কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেন। কালিয়াকৈর থানা পুলিশ মঙ্গলবার দন্ডপ্রাপ্ত ওই দুই বখাটেকে গাজীপুর জেলা কারাগারে প্রেরণ করে।