গাজীপুরে রমজানে যানজট নিরসনে পুলিশের পাশাপাশি ৭শতাধিক কমিউনিটি পুলিশ কাজ করবে

॥ জেলা প্রশাসনের বাজার মনিটরিং ॥

আসন্ন পবিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে গাজীপুরে যানজট নিরসনে মহাসড়কগুলোতে অতিরিক্ত পুলিশ দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়াও পুলিশের পাশাপাশি কমিউনিটি পুলিশের সাত শতাধিক সদস্য কাজ করবে। মানুষের যাত্রা নির্বিঘœ ও নিরাপদ করতে পুলিশের মোটরসাইকেল টহল জোরদার এবং বিপনী বিতানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে। বৃহষ্পতিবার বিকেলে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের চান্দনা চৌরাস্তা মোড় এলাকায় যানজট পরিস্থিতি পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন গাজীপুর পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।
তিনি আরো বলেন, রমজান মাস উপলক্ষে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের টঙ্গী থেকে সালনা এবং কালিয়াকৈর-কড্ডা-ভুলতা সড়কের (ঢাকা বাইপাস) চন্দ্রা থেকে মীরের বাজার পর্যন্ত মহাসড়কের পাশে যানবাহনের কোন পার্কিং থাকবেনা, অবৈধ দোকান পাট বসতে দেয়া হবে না। এছাড়া জেলার বিপনী বিতানগুলোর নিরাপত্তায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন থাকবে।
পরিদর্শনকালে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাসেল শেখ, কমিউনিটি পুলিশের সুলতান উদ্দিন সরকারসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এসময় পুলিশ সদস্যদের তৎপরতায় তাৎক্ষনিকভাবে চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় সড়ক ও ফুটপাতের উপর থেকে অবৈধ ভাসমান দোকান ও গাড়ি পার্কিং উচ্ছেদ করা হয়।

এদিকে আসন্ন পবিত্র মাহে রমজানে দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল রাখা এবং পণ্যে ভেজাল প্রতিরোধের লক্ষ্যে বৃহষ্পতিবার জেলা শহরের জয়দেবপুর বাজারে বিশেষ বাজার মনিটরিং অভিযান পরিচালনা করে জেলা প্রশাসন। গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীরের নেতৃত্বে এই বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় তিনি জয়দেবপুর কাঁচাবাজারে নিত্যপণ্যের মান এবং মূল্য তদারকি করেন এবং অবৈধ স্থাপনাসমূহ দ্রুত উচ্ছেদের জন্য প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। এসময় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে মেয়াদ উত্তীর্ণ খেজুর বিক্রির অপরাধে ২ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা আদায় করা হয়। গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট সঞ্জীব কুমার দেবনাথ, এনডিসি বি. এম. কুদরত-এ-খুদা, সহকারী কমিশনার কাউসার আহমেদ ও বাজার সমিতির নেতৃবৃন্দ এ অভিযানে অংশগ্রহণ করেন। এছাড়াও এদিন গাজীপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের নেতৃত্বে সবকয়টি উপজেলায় পৃথক বাজার মনিটরিং অভিযান পরিচালনা করা হয়।