গাজীপুরে কোটি টাকার ইয়াবাসহ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন কর্মচারী ও নারীসহ ৫২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

গাজীপুরে চল্লিশ সহ¯্রাধিক ইয়াবা টেবলেট ও নগদ টাকাসহ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক প্রাক্তন কর্মচারী ও এক নারীকে র‌্যাব-১ এর সদস্যরা গ্রেফতার করেছে। এসময় তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ৪টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়াও গাজীপুর জেলা পুলিশ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২হাজার পিস ইয়াবা টেবলেট, ৮ কেজি গাঁজা, ২০ বোতল ফেন্সিডিল, ১০০লিটার চোলাই মদসহ ৫০জনকে গ্রেফতার করেছে।

র‌্যাব-১-এর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মো. ইশতিয়াক আহমেদ জানান, রবিবার রাতে টঙ্গী বাজার এলাকায় ইয়াবা বিক্রি ও সরবরাহ করছে কয়েক ইয়াবা ব্যবসায়ী। এ গোপন খবর পেয়ে র‌্যাব-১ এর সদসরা সেখানে অভিযান চালিয়ে নড়াইলের লোহাগড়া থানার মৌলভী ধানাইর এলাকার মো. বায়োজিদ হোসেন (৪১) ও ফরিদপুরের রাজবাড়ি থানার বাইবাড়ি এলাকার মো. জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী জাহানারা বেগমকে (৩৫) হাতে-নাতে আটক করা হয়। পরে তাদের হেফাজত থেকে ৪০হাজার ১৩৫ পিস ইয়াবা টেবলেট, ৪টি মোবাইল ফোন ও নগদ এক হাজার ২৮০টাকা জব্দ করা হয়েছে। উদ্ধার করা মাদকের মূল্য এক কোটি ২০লাখ ৪০হাজার ৫ শত টাকা।

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে বায়েজিদ হোসেন জানান, ২০০১ সালে টঙ্গী সরকারী কলেজ হতে বিএ পাশ করে। ২০০২ সাল হতে ২০১০ সাল পর্যন্ত সে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকুরী করে। কিন্তু জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগ প্রক্রিয়া সঠিক না থাকার কারণে চাকুরী চলে যায়। পরবর্তীতে সে ২০১১ সাল হতে ২০১৭ সাল পর্যন্ত গার্মেন্টস সেক্টরে চাকুরী করে। সে স্বল্প সময়ে অধিক অর্থ আয়ের অসৎ উদ্দেশ্যে ২০১৭ সালে ইয়াবা ব্যবসার সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে।

অপর গ্রেফতারকৃত জাহানারা বেগম জানায়, নিজের ভাই জাহিদ এর হাত ধরে জাহানারা মূলত মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত হয়। মাদক ব্যবসার অভিযোগে জাহিদ বর্তমানে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি আছে। জাহিদ কারাগারে যাওয়ার পর মাদক ব্যবসায়ী সুমনের সহযোগীতায় সে (জাহানারা) মাদকের চালান এক স্থান হতে অন্যত্র সরবরাহের কাজ করে আসছিল।

এ ছাড়া একই রাতে জেলা পুলিশ গাজীপুরের বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২হাজার পিস ইয়াবা টেবলেট, ৮ কেজি গাঁজা, ২০ বোতল ফেন্সিডিল, ১০০লিটার চোলাই মদসহ ৫০জনকে গ্রেফতার করেছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের বিশেষ শাখার পরিদর্শক মো. মোমিনুল ইসলাম।