চোরাই মোটরসাইকেল, সিএনজি, ও পুলিশের পোশাক- হ্যান্ডকাপসহ গ্রেফতার ৬

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা উত্তর বিভাগের একটি টিম বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে সংঘবদ্ধ মোটরসাইকেল ও সিএনজি চোরাই চক্রের ০৬ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে। গত ২২/০৫/১৮ তারিখ ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচলনা করে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- ১। মোঃ রফিক, ২। মোঃ মানিক, ৩। মোঃ আব্দুল আলীম ৪। মোঃ হাসান মৃধা ৫। মোহাম্মদ আলী ও ৬। মোঃ চান মিয়া।

গ্রেফতারের সময় তাদের নিকট হতে ১১ টি চোরাই মোটরসাইকেল, ২ টি সিএনজি, ১ সেট পাঞ্চ মেশিন,পুলিশের ৫ সেট পোশাক, ১টি হ্যান্ডকাপ, ২০ টি চেতনা নাশক ট্যাবলেট, ২ টি সিরিঞ্জ ও ৩ প্যাকেট প্রাণ জুস উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা জানায়, তারা দীর্ঘদিন ধরে ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন এলাকা হতে মোটরসাইকেল ও সিএনজি চুরি করে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রয় করে। গ্রেফতারকৃত রফিক ও মানিক মোটরসাইকেল চুরি করে আসামী আব্দুল আলীমের নিকট বিক্রি করে। পরবর্তী সময়ে আব্দুল আলীম তার সহযোগী আসামী হাসান মৃধার মাধ্যমে মোটরসাইকেলের চেসিস ও ইঞ্জিন নম্বর পরিবর্তন করে বিক্রি করে।

অপরদিকে আসামী মোহাম্মদ আলী ও চান মিয়া জানায় যে, তারা পুলিশ সেজে তাদের একজন সিভিল সহযোগীকে আসামী হিসেবে গ্রেফতার করে হ্যান্ডকাপ পরিয়ে সিএনজিতে ওঠে। কিছুদুর যাওয়ার পর তাদের অন্যান্য সহযোগীদের সাথে পরিকল্পনামাফিক পূর্ব নির্ধারিত স্থানে সিএনজি থামায়। উক্ত স্থান হতে তারা চা/জুস/সিদ্ধ ডিম ইত্যাদি খায়। এসময় তারা কৌশলে সিএনজি চালকের সাথে বন্ধুত্বপূর্ন সম্পর্ক স্থাপন করে এবং পুলিশের পোশাক পরে বিশ^স্ততা অর্জন করে তাকে খাদ্য গ্রহণের আমন্ত্রণ জানায়। সিএনজি চালক রাজি হলে, ট্যাবলেট মিশ্রিত চা/জুস/সিদ্ধ ডিম ইত্যাদি খাওয়ায়। খাবার খেয়ে সিএনজি চালক অজ্ঞান হলে তাকে সুবিধামত স্থানে ফেলে দিয়ে সিএনজি নিয়ে পালিয়ে যায়।

উপ-পুলিশ কমিশনার
মিডিয়া এন্ড পাবলিক রিলেশন্স, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ, ঢাকা