রাজধানীতে মুষলধারে বৃষ্টি: জলাবদ্ধতা আর যানজটে নাকাল নগরবাসী

টানা কয়েকদিনের তীব্র গরমের পর বৃহস্পতিবার ভোর থেকে নগরজুড়ে প্রায় তিন ঘণ্টাব্যাপী বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টিতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় চিরচেনা জলাবদ্ধার সৃষ্টি হয়। আবহাওয়া অফিস ৮১ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করেছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে ৯টা পর্যন্ত টানা তিন ঘণ্টার বৃষ্টি নগরীর বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। পাশাপাশি দেখা দিয়েছে যানজটও। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন পথচারীরা।ঢাকা আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ নিঝুম রোকেয়া জানান, আজ সকালে ৮১মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে ঢাকায়। সারদিনই আকাশ মেঘলা থাকতে পারে। আগামীকাল নাগাদ আবহাওয়া স্বাভাবিক হবে।

এদিকে আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি ঘনীভূত হয়ে উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় নিম্নচাপ এবং পরে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়ে মিয়ানমারের রাখাইন উপকূল অতিক্রম সম্পন্ন করেছে। বর্তমানে এটা স্থল নিম্নচাপ আকারে মিয়ানমারের মধ্যাঞ্চলে অবস্থান করছে। এটি উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ক্রমান্বয়ে দুর্বল হয়ে যেতে পারে। লঘুচাপের বর্ধিতাংশ বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চল পর্যন্ত বিরাজ করছে।

বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মীরপুর, শ্যামলি, পল্লবী, তালতলা, মোহাম্মদপুর, কাজীপাড়া, শেরেবাংলা নগর, আগারগাঁও এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে সড়কজুড়ে বৃষ্টির পানির ঢেউ। গাড়ির ইঞ্জিনে পানি ঢুকে পড়ায় বেশ কয়েকটি যানবাহন বিকল হয়ে সড়কে পড়ে আছে। সড়কের কোথাও কোথাও যানজট রয়েছে। পানির মধ্য দিয়ে পথচারীরা হেঁটে চলাচল করছেন।অপরদিকে, দারুস সালাম, ক্যান্টনমেন্ট, কালশি, উত্তরা ও বিমানবন্দর এলাকা এবং দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ধানমন্ডি-২৭, হাজারীবাগ, শংকর, জিগাতলা, রায়েরবাজার ও পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডসসহ বেশ কিছু স্থানে জলাবদ্ধতার খবর পাওয়া গেছে। এসব এলাকায় যারা ঘর ছেড়ে কাজে বাইরে বের হয়েছেন, তাদের সীমাহীন বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে।মিরপুর ১০ নম্বর থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত পুরো সড়কটি হাঁটু পরিমাণ পানি জমে গেছে। পানিতে ডুবে থাকা সড়কের মধ্য দিয়ে যানবাহন চলাচলের সময় সড়কজুড়ে সৃষ্টি হচ্ছিল ঢেউ। কাজীপাড়ার বাসিন্দা আবু সালেহ সাহাদাত বলেন, সকালে অফিসের একটি কাজে মীরপুর ১০ নম্বরে যাওয়ার জন্য বাসা থেকে বের হয়ে রাস্তায় এসে দেখি পুরো রাস্তা পানিতে তলিয়ে আছে। যানবাহনও অনেক কম। কয়েকটি গাড়ি নষ্ট হয়ে পড়ে আছে। পরে বাধ্য হয়ে পানির মধ্য দিয়ে হেঁটে হেঁটে কাজে গিয়েছি।

জানতে চাইলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) অতিরিক্ত প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা খন্দকার মিল্লাতুল ইসলাম বলেন, ‘বৃষ্টিতে সৃষ্ট জলাবদ্ধতায় কাজ করার জন্য আমাদের অঞ্চলভিত্তিক কাউন্সিলর ও আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম গঠন করা আছে। তারা সড়কের বিভিন্ন ম্যানহোল ও ড্রেন উন্মুক্ত করে দিয়ে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে। ডিএসসিসি এলাকায় জলাবদ্ধতা তেমন একটা নেই।

অপরদিকে জলাবদ্ধতা বিষয়ে কথা বলার জন্য সকাল থেকে ডিএনসিসির সংশ্লিষ্ট বিভাগের একাধিক কর্মকর্তাকে ফোন করলেও কাউকে পাওয়া যায়নি।দুই সিটি করপোরেশন ও ঢাকা ওয়াসা সূত্র জানিয়েছে, বর্তমানে রাজধানীর ১৩টি স্থানে জলাবদ্ধতা নিরসনের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এছাড়া, প্রকল্প এলাকায় অবস্থিত খালগুলো খনন ও প্রশস্ত করে তীর উন্নয়ন এবং ওয়াকওয়ে নির্মাণের মাধ্যমে খালের দুই তীরের পরিবেশ উন্নত করা হবে। এজন্য একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। ঢাকা মহানগরীর ড্রেনেজ নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ ও খাল উন্নয়ন’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় জলাবদ্ধতা নিরসন করা হবে।জানা গেছে, খাল খননসহ পানি নিষ্কাশন সংক্রান্ত প্রকল্পটি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ৫৫০ কোটি টাকা। এ বছর থেকে ২০২০ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে ঢাকা ওয়াসা।আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছুজায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়া ও বিজলী চমকানোসহ হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরণের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে।