ছাতা ও জায়নামাজ ছাড়া অন্যকিছু বহন নিষেধ

জাতীয় ঈদগাহের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ঈদের জামাতে মুসল্লিরা জায়নামাজ ও ছাতা ছাড়া অন্য কোন কিছু আনতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। বৃহস্পতিবার সকালে, জাতীয় ঈদগাহ মাঠের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শনে এসে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ- ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া একথা বলেন। ঈদে নিরাপত্তায় সুস্পষ্ট কোন হুমকী না থাকলেও ২০১৬ সালে শোলাকিয়া মায়দানে হামলা চেষ্টা বিবেচনায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা সাজানোর কথা জানান তিনি।

এ সময় তিনি বলেন, নিরাপত্তার কারণে ঈদগাহ ময়দানে প্রবেশের সময় কয়েকটি পয়েন্টে মুসল্লিদের তল্লাশি করা হবে। কয়েকস্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা, সিসি ক্যামেরা, ডগ স্কোয়াড, সাদা পোষাকের পুলিশ নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকবে। এছাড়া জামিনে থাকা জঙ্গিদের বিশেষ নজরদারিতে রাখা হয়েছে বলেও জানান ডিএমপি কমিশনার।

ঈদে বিপুল সংখ্যক মানুষ রাজধানী ছাড়ার কারণে ফাঁকা থাকবে ঢাকা। এই ফাঁকা রাজধানীর নিরাপত্তার কারণে অফিস, বাসাবাড়িতে বিশেষ নজরদারি থাকবে। প্রত্যেক এলাকার চেকপোষ্ট গুলোতে তল্লাশি বাড়ানো হবে এবং এলাকাভিত্তিক সিকিউরিটি গার্ডদের সমন্বয়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা সাজানো হবে বলেও জানান ডিএমপি কমিশনার।

এদিকে প্রাকৃতিক দুর্যোগ হলে ঈদের জামাত জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা জানিয়েছেন দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশেনের মেয়র সাঈদ খোকন। ঈদগাহ ময়দান পরিদর্শনে এসে ডিএসসিসির মেয়র সাঈদ খোকন আরও জানান, ঈদের মূল জামাত সকাল সাড়ে আটটায় অনুষ্ঠিত হবে।