সিএমএইচেও চিকিৎসা নিতে রাজি নন খালেদা জিয়া: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসার বিষয়ে প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। তবে তিনি সেখানেও চিকিৎসা নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। তিনি বরাবরের মতো আজও ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আগ্রহ দেখিয়েছেন। জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও একটি বৃহত্তর রাজনৈতিক দলের প্রধান। আমরা তার চিকিৎসার বিষয়টি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। এ কারণেই আমরা প্রথমে তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাসেবা দিতে চেয়েছি। তিনি অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। পরবর্তী সময়ে কারা কর্তৃপক্ষ তাকে সিএমএইচে চিকিৎসা নিতে প্রস্তাব করেছেন। এটি দেশের সব হাসপাতাল থেকে অনেক গুণে ভালো। এখানেও তিনি চিকিৎসা নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। তিনি বলেন, জেলকোড অনুসারে কোথাও চিকিৎসা নিতে অনিচ্ছা জানানোর সুযোগ নেই। আমরা বলেছি খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের উপস্থিতিতেই তার চিকিৎসা করা হবে। এখন তিনি যেহেতু সরকারি ব্যবস্থাপনায় কোথাও চিকিৎসা সেবা নিতে চাচ্ছেন না এজন্য খালেদা জিয়ার চিকিৎসকদের নিয়ে বসে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া চাইলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসা নিতে পারেন। দেশের খ্যাতিমান চিকিৎসকরা এখানে আছেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও চিকিৎসার সময় প্রয়োজনে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকরাও থাকতে পারবেন। এতে কোনো বাধা নেই। পারিবারিক খরচে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে ভর্তি করিয়ে চিকিৎসার সুযোগ দেয়ার জন্য গত মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বরাবর আবেদন করেছিলেন তার ভাই শামীম ইস্কান্দার।