হল-মার্ক চেয়ারম্যান জেসমিনের তিন বছরের সশ্রম কারাদন্ড

সম্পদের হিসাব বিবরণী দাখিল না করায় হল-মার্ক গ্রুপের চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলামকে তিন বছরের কারাদন্ড দিয়েছে আদালত।মঙ্গলবার ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আক্তারুজ্জামান পাঁচ বছর আগের এই দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা করেন।বিচারক কারাদন্ডের পাশাপাশি জেসমিন ইসলামকে ২০ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন, যা সাত দিনের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। আর তার সাজা থেকে হাজতবাসকালীন সময় বাদ যাবে।হল-মার্ক গ্র“পর ঋণ কেলেঙ্কারির মামলায় গত ২২ মাস ধরে কারাবন্দিকে এই রায়ের জন্য মঙ্গলবার আদালতে হাজির করা হয়। রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন জেসমিন ইসলাম।

রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদকের আইনজীবী মো. জাহাঙ্গীর হোসেন এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘দুনীতি দমন কমিশন আইন-২০০৪ এর ২৬ (২) ধারায় জেসমিন ইসলামকে একমাত্র আসামি করে তার বিরুদ্ধে গত ২০১৬ সালে ২ ফেব্র“য়ারি অভিযোগ গঠন করা হয়। আদালত ছয় জন সাক্ষীর জবানবন্দি গ্রহণ করে এ রায় দেন।মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়Ñ ২০১৩ সালের ১৩ নভেম্বর হলমার্কের চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলামকে ৭ দিনের মধ্যে সম্পদের হিসাব বিবরণী দাখিল করতে নির্দেশ দেয় দুদক। দুদকের নোটিস পেয়ে আসামি জেসমিন তার আইনজীবী আফাজুল হকের মাধ্যমে সম্পদের হিসাব বিবরণী দাখিলের মেয়াদ বাড়ানোর জন্য আবেদন করেন। দুদক আরও ৭ দিন সময় বাড়িয়ে দেন। কিন্তু এর পরও জেসমিন আদালতে সম্পদের হিসাব বিবরণী দাখিল না করায় দুদকের উপসহকারীপরিচালক মুহাম্মদ জয়নাল আবেদিন ঢাকার রমনা থানায় বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।পরে গত ২০১৪ সালের ১৬ অক্টোবর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপপরিচালক মো. মঞ্জুর মোর্শেদ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।