নানার বাড়ি বেড়াতে গিয়ে শ্রীপুরে ভাই-বোনের মৃত্যু, খালাতো বোন আহত ॥

গাজীপুরের শ্রীপুরে নানার বাড়ী বেড়াতে গিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় পুকুরের পানিতে ডুবে ভাই-বোনের মৃত্যু হয়েছে। এসময় তাদের খালাতো বোন আহত হয়েছে। নিহতরা হলো শ্রীপুর উপজেলার গিলাশ্বর গ্রামের বাবুল হোসেনের মেয়ে সেতু (১৩) ও ছেলে তানজীদ আহমেদ (৭)। এদের মধ্যে সেতু গিলাশ্বর দাখিল মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী এবং তানজীদ আহমেদ গিলাশ্বর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্র।

বরমী ইউনিয়ন পরিষদের ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য নাজমুল হক আকন্দ রনি ও স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার সকালে মায়েদের সঙ্গে সেতু ও তানজীদ আহমেদ এবং তাদের খালাতো বোন সুমাইয়া গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার দুর্লভপুর গ্রামে নানা জালাল উদ্দিনের বাড়ীতে বেড়াতে যায়। বিকেলে নানার বাড়ির পার্শ্ববর্তী পুকুর পাড়ে অন্য শিশুদের সঙ্গে তারা খেলা করছিল। খেলাধূলা করার এক পর্যায়ে সন্ধ্যায় সেতু, তানজীদ ও সুমাইয়া পুকুরে নেমে পানিতে তলিয়ে যায়। এদিকে অন্য শিশুদের সঙ্গে সেতু, তানজীদ ও সুমাইয়াকে দেখতে না পেয়ে স্বজনরা খোঁজাখুঁজি শুরু করে। একপর্যায়ে তারা পুকুরে তল্লাশী চালিয়ে পানির নীচ থেকে সেতু ও তানজীদের লাশ উদ্ধার করে। এসময় গুরুতর অবস্থায় সুমাইয়াকে উদ্ধার স্থানীয় একটি ক্লিনিকে নিয়ে যায়। সেখানে সেতু ও তানজীদকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। আহত সুমাইয়া এখন শঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন ওই ইউপি সদস্য। এঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। স্বজনদের আহাজারিতে পুরো এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে উঠে।